অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুলের পরিচালক ফোরকান আটক

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনা করা নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন নব্য জেএমবির সদস্য এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র জাহিদ হাসান ওরফে বোমা জাহিদকে আটক করেছে কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। ওই  জাহিদ কাতারপ্রবাসী ফোরকান, রাজু বা ফোরকান ভাই নামে পরিচিত।

বুধবার (১১ আগস্ট) দুপুরে গণমাধ্যমকে এই বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিটিটিসির প্রধান পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান। গতকাল (১০ আগস্ট) রাতে রাজধানীর কাফরুল থানা এলাকা থেকে বোমা জাহিদকে আটক করা হয়।

সূত্র জানায়, অনলাইনে বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনাকারী ফোরকান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির  পর থেকে সে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ে। বিস্ফোরকের নানা উপকরণ নিয়ে পড়াশুনা করে ও অনলাইনে প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেই বোমা তৈরির দক্ষ কারিগর হয়ে ওঠে। সাংগঠনিক সিদ্ধান্তে সে নিজেই বোমা তৈরির স্কুল পরিচালনা শুরু করে।

জাহিদ ওরফে ফোরকান এনক্রিপ্টেড বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে সংগঠনের সহযোগী সদস্যদের কাছে বোমা তৈরির ম্যানুয়াল পাঠিয়ে দিতো। পরে সপ্তাহের ১টি নির্দিষ্ট সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ভিডিও কলে হাতে-কলমে শেখাতো। তার তৈরি করা বোমা বা আইইডি সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জের একটি পুলিশ বক্স থেকে উদ্ধার করা হয়।

গত ১২ জুলাই নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এবং বন্দর থানাধীন ২টি জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে একাধিক আইইডি উদ্ধারের পর তা নিস্ক্রিয় করা হয়। এ ঘটনায় আব্দুল্লাহ আল মামুন ও কাউসার হোসেন ওরফে মেজর উসামা নামে দুই জঙ্গিকে আটক করা হয়।  তারা জিজ্ঞাসাবাদে বোমা তৈরির অনলাইন স্কুলের মাধ্যমে প্রশিক্ষণ নেওয়ার কথা স্বীকার করে। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে প্রশিক্ষক জাহিদ ওরফে ফোরকানকে আটকের জন্য অভিযানে নামে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

(ঊষার আলো-আরএম)