অল্প বয়সে চুল পাকার সমাধান পেতে পারেন যেভাবে

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : বয়স বাড়ার সাথে সাথে চুল সাদা হওয়াটা স্বাভাবিক। তবে অসময়ে চুল পেকে যাওয়াটা অবশ্যই একটি চিন্তার বিষয়। এমনটা হলে বুঝতে হবে শরীরে প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানগুলির যথেষ্ট অভাব আছে। আবার অনেক সময় জিনগত কারণেও অল্প বয়সে চুল পেকে থাকে।

গবেষকেরা জানান, এর কোনো সঠিক কারণ তারা এখনো বের করতে পারেননি। কিন্তু জিনগত কারণেই কম বয়সে চুল পাকে। চুল পাকলে আবার অনেকে সেটা তুলেও ফেলেন। মাথায় একটা বা দুইটি চুল পাকতে শুরু করলে তা তুলে ফেলা ঠিক নয়। কারণ এতে সেই স্থানে আরেকটি চুলে পাক ধরে যায়।

মার্কিন বিশেষজ্ঞ রবার্ট বরিন জনান, মাথার পাকা চুল তুলে তোলা একদম উচিত নয়। ঘরোয়াভাবে যেভাবে এর কিছু সমাধান পাওয়া যেতে পারে-

গাজরের রস করে তার সাথে জল ও চিনি ভাল করে মিশিয়ে নিন। এই ভাবে এ মিশ্রণ বানিয়ে নিয়মিত খান। খুব দ্রুত উপকার পাবেন।

পেঁয়াজ বাটা চুলের অকালে পেকে যাওয়া ঠেকাতে একটি অত্যন্ত কার্যকরী উপাদান। পেঁয়াজ বেটে প্রতিদিন তা চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। ৩০ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলুন। অল্প দিনের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

বাদাম তেলের সাথে তিলের বীজ গুঁড়ো করে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এ বার এই মিশ্রণটি চুলের গোড়ায় ভাল ভাবে মেখে ২০ থেকে ৩০ মিনিট রেখে দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন এই মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারলে দ্রুত উপকার পাবেন।

আমলকির গুঁড়োর সাথে পাতিলেবুর রস মিশিয়ে প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। তারপর ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। পাকা চুলের সমস্যায় উপকার পাবেন।

পাকা চুলের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে হলে প্রতিদিন নারকেল তেলের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে চুলের গোড়ায় মাখুন। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

ঊষার আলো-এফএসপি)