আজ জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনের উচ্চপর্যায়ের সাধারণ আলোচনায় ভাষণ দেবেন।
সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে রোহিঙ্গা, জলবায়ু পরিবর্তন ও করোনা-পরবর্তী অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের বিষয়ে গুরুত্ব দেবে।

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে অন্য যেসব বিষয় অগ্রাধিকার পাবে, তা হচ্ছে টেকসই উন্নয়ন, খাদ্যনিরাপত্তা ও অসমতা দূরীকরণ।প্রধানমন্ত্রী ২১ সেপ্টেম্বর সাধারণ পরিষদের সাধারণ বিতর্কের প্রথম দিন অংশ নেন। এই অধিবেশন ২৭ সেপ্টেম্বর শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

শেখ হাসিনা তাঁর পিতা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে আগের বছরগুলোর মতোই বাংলা ভাষায় তার ভাষণ দেবেন। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে এটি হবে বাংলা ভাষায় তাঁর দেওয়া ১৮তম ভাষণ। প্রথম বঙ্গবন্ধু ১৯৭৪ সালে জাতিসংঘে বাংলায় ভাষণ দেন।

প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিতে ঢাকা থেকে হেলসিঙ্কি হয়ে নিউইয়র্কে পৌঁছান। করোনা মহামারি পরিস্থিতির কারণে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশনে তিনি নিজে সশরীর যোগ দিতে পারেননি।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশন ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়। সেদিন সাধারণ পরিষদের প্রেসিডেন্ট হিসেবে মালদ্বীপের আবদুল্লাহ শহিদ শপথ গ্রহণ করেন। তিনি বর্তমান অধিবেশন উদ্বোধন করেন।

বৈশ্বিক মহামারির কারণে সাধারণ পরিষদের হলে অনুমোদিত প্রতিনিধির সংখ্যা সীমিত করা হয়েছে। একই কারণে জাতিসংঘের সদস্যদেশগুলোর প্রতিনিধিদের সংস্থার সদর দপ্তরে সরাসরি উপস্থিত থাকার পরিবর্তে আগে ধারণ করা বিবৃতি দেওয়ায় উৎসাহিত করা হয়।

শতাধিক রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান জাতিসংঘের প্রধান নীতিনির্ধারণী অঙ্গ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে সশরীর অংশগ্রহন করেছেন।

(ঊষার আলো-এ এস)