আটরা গিলাতলা ইউপি নির্বাচনে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি !

সর্বশেষ আপডেটঃ

শেখ বদর উদ্দিন : নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিলে ২য় ধাপে ফুলতলা উপজেলার ৪ ইউনিয়নে আগামী ১১ নভেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আটরা গিলাতলা ইউনিয়নে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি এই নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। এলাকার প্রতিটি চায়ের দোকান, পানের দোকান ও মোড়ে-মোড়ে জমজমাট রাজনৈতিক আড্ডা চলছে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত।

সরেজমিনে সম্ভাব্য নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে, তার মধ্যে রয়েছেন বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও খানজাহান আলী থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক শেখ মনিরুল ইসলাম। তিনি ফুলতলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আকরাম হোসেনের ছোট ভাই। দল থেকে মনোনয়ন পেলে এবং জনগণ রায় দিলে বিগত দিনের মত ভবিষ্যতেও এলাকার জনগণের খেদমত করতে চান তিনি। খানজাহান আলী থানা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাহাঙ্গির হোসেন আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চেয়ারম্যান পদে নৌকার মাঝি হতে চান। অন্যদিকে ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের বারবার নির্বাচিত ইউপি সদস্য ও ৩৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি খান হাফিজুর রহমান।

যুবলীগ নেতা শিরোমনি তরুন সংঘের সভাপতি শেখ তরিকুল ইসলামও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে তারাও নৌকার মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাপ করে যাচ্ছেন। এদিকে সম্ভাব্য এসব মনোনয়ন প্রত্যাশারী এলাকার পাশাপাশি হাইকমান্ডে নৌকার মাঝি হাওয়ার জন্য দৌঁড়ঝাপ করছে প্রতিনিয়ত।

তবে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র বলছে, কে হবেন আটরা গিলাতলা ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার মাঝি তা আগামী কয়েক দিনের মধ্যে তার নাম প্রকাশ হয়ে যাবে। এক সাথে ঘটবে হাট বাজারে, চায়ের দোকানে চলা সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ি বিএনপি এ নির্বাচনে অংশগ্রহন না করাতে দলের কোন প্রার্থী এ নির্বাচনে যাচ্ছেনা। তবে নির্বাচেন জয়লাভের ক্ষেত্রে বিএনপি জামায়াত এর ভোটব্যাংক যে প্রার্থীর দিকে যাবে তাদের বিজয় সুনিশ্চিত বলে অভিজ্ঞমহল মনে করেন।

(ঊষার আলো-এমএনএস)