আপনাদের কর্মকান্ডে যেন আমিসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের গায়ে কাঁদা না লাগে : শেখ সোহেল

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো প্রতিবেদক : আপনাদের কোন কর্মকান্ডে যেন আমিসহ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতাদের গায়ে কাঁদা না লাগে, এই বিষয়টা সবাই লক্ষ্য রাখবেন। যুবলীগে কারও ভাই, বন্ধু ও আত্মীয় পরিচয়ে জায়গা হবে না। সাংগঠনিকভাবে যুবলীগ করতে হবে। আর একটি বিষয়- ভূমিদস্যু, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত ক্লিন ইমেজের কর্মীদের সংগঠনের দায়িত্বে আনতে হবে। খুলনা মহানগরীর একটি অভিজাত হোটেলে শুক্রবার (২ এপ্রিল) বেলা ১১টায় যুবলীগের বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ সোহেল এ কথা বলেন।
বিভাগের অন্তর্গত দশ জেলার সভাপতি/আহবায়ক ও সাধারণ সম্পাদক / যুগ্ম আহবায়কদের প্রতিনিধি সভায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সুব্রত পালের সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডঃ শামীম আল সাইফুল সোহাগ এর সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা ব্যারিষ্টার সেলিম আলতাফ জর্জ এমপি, ইঞ্জিনিয়ার মৃণাল কান্তি জোয়ার্দার, মোঃ আনোয়ার হোসেন, জয়দেব নন্দি, কাজী সরোয়ার হোসেন, দেলোয়ার শাহাজাদা, এ্যাডঃ নবিরুজ্জামান বাবু, এনামুল হক সোহাগ, বাবলু রহমান বাবলু, কাজী বশির আহম্মেদ, ভিপি মিরান, তারিক আল মামুনসহ কেন্দ্রীয় যুবলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।
প্রতিনিধি সভায় জেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান জামাল ও সাধারণ সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান বাবু, নগর যুবলীগের আহবায়ক সফিকুর রহমান পলাশ ও যুগ্ম আহবায়ক শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজনসহ বিভাগের নয় জেলার সভাপতি/ আহবায়ক ও যুগ্ম আহবায়ক / সাধারণ সম্পাদক এবং দপ্তর সম্পাদকেরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় আগামী ২০ মে খুলনা মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভা ও ২১ মে জেলা যুবলীগের বর্ধিত সভার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এই সকল বর্ধিত সভায় বিভাগীয় কমিটির দায়িত্ব প্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

(ঊষার আলো-এমএনএস)