ঈদের ছুটিতে বেনাপোল বন্দর বন্ধ থাকবে ৩ দিন

সর্বশেষ আপডেটঃ

যশোর প্রতিনিধি : পবিত্র ঈদ-উল ফিতর এর ছুটিতে দেশের সর্ববৃহৎ বেনাপোল স্থলবন্দরের সাথে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের টানা তিন দিন বন্ধ থাকবে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম। তবে তিন দিনের কথা বলা হলেও মূলত বন্ধ থাকছে একদিন। আর দুইদিন সাপ্তাহিক ছুটি। ঈদের ছুটিতে তিনদিন আমদানি-রফতানি বন্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ এ্যাসেসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান।
বন্দর সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১৩ মে) ঈদ-উল-ফিতর ও শুক্র ও শনিবার (১৪ ও ১৫ মে) সাপ্তাহিক ছুটিতে বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে দুই দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে আলোচনার ভিত্তিতে। রবিবার (১৬ মে) সকাল থেকে পুনরায় আমদানি-রফতানি, কাস্টমস হাউজের কার্যক্রম ও বন্দরে পণ্য খালাস কার্যক্রম শুরু হবে।
এদিকে পবিত্র শবে কদর উপলক্ষে সরকারি ছুটি থাকায় সোমবার (১০ মে) বন্ধ ছিল বেনাপোল বন্দর দিয়ে প্রতিবেশি দেশ ভারতের সাথে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য। আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বেনাপোল স্থলবন্দরের সহকারি পরিচালক আতিকুল ইসলাম জানান, সোমবার (১০ মে) পবিত্র শবে কদরের সরকারি ছুটি থাকায় বেনাপোল-পেট্রোপোল বন্দরের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকবে। মঙ্গলবার (১১ মে) সকাল থেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পুনরায় বাণিজ্যক কার্যক্রম শুরু হবে। বুধবার (১২ মে) পর্যন্ত আমদানি-রফতানি হওয়ার পর বৃহস্পতিবার (১৩ মে) থেকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতররের ছুটিতে বন্ধ হয়ে যাবে আমদানি-রফতানি কার্যক্রমসহ কাস্টমস ও বন্দরের সকল কার্যক্রম।
পোর্ট থানার ওসি (অপারেশন) আজিজুল হক বলেন, ঈদের ছুটির মধ্যে বন্দর এলাকায় যাতে কোনো অপ্রীতিকর ও দুর্ঘটনা না ঘটে সে জন্য বিশেষ নজরদারি নেয়া হয়েছে।
বন্দরের উপ পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবির তরফদার জানান, ঈদের ছুটির মধ্যে বন্দরে যাতে কোন ধরনের নাশকতামূলক বা অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। বন্দরের নিজস্ব নিরাপত্তা বাহিনী ও আনসার সদস্যরা দিনে রাতে বন্দর এলাকায় টহল দিবে। পাশাপাশি বেনাপোল পোর্ট থানা কর্তৃপক্ষকেও বিষয়টি বলা হয়েছে।
জানা যায়, দেশে চলমান ১২টি স্থলবন্দরের মধ্যে সবচেয়ে বড় আর বেশি রাজস্ব আদায়কারি বেনাপোল স্থলবন্দর। স্থল পথে যে পণ্য আমদানি হয় তার ৬০ শতাংশ হয়ে থাকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে। প্রতিদিন বন্দর দিয়ে ভারত থেকে ৪শ’ ট্রাক বিভিন্ন ধরনের পণ্য নিয়ে বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করে থাকে। প্রতিবছর এ বন্দর থেকে সরকারের প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আসে।
চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ভ্রমন নিষেধাজ্ঞার কারণে গত ২৬ এপ্রিল থেকে এ পথে নতুন করে পাসপোর্টযাত্রী যাতায়াত বন্ধ রয়েছে। তবে নিষেধাজ্ঞার আগে যারা আটকা পড়েছিল তারা দূতাবাস থেকে ছাত্রপত্র নিয়ে যাওয়া আসা করছেন। তাদের ক্ষেত্রে কোন বাঁধা নেয়। তবে যারা ফেরত আসবে তাদের অবশ্যই ১৪ দিন নিজ খরচে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)