UsharAlo logo
মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উড়তে উড়তে খুলে পড়ল ভারতীয় যুদ্ধবিমানের ফুয়েল ট্যাংক

usharalodesk
মে ২৩, ২০২৩ ১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঊষার আলো ডেস্ক :  উড্ডয়নরত অবস্থায় মাঝ আকাশ থেকে খুলে পড়েছে ভারতীয় বিমান বাহিনীর মিগ-২৯ যুদ্ধবিমানের একটি ফুয়েল ট্যাংক। নিয়মিত প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে উড্ডয়নের সময় যুদ্ধবিমানটির ওই অতিরিক্ত ফুয়েল ট্যাংকটি খুলে নিচে পড়ে যায়।

সোমবার (২২ মে) ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পশ্চিম মেদিনীপুরে এই ঘটনা ঘটে। অবশ্য এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ালেও কেউ আহত হয়নি বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে পশ্চিম মেদিনীপুরের আকাশে উড্ডয়নের সময় সোমবার বিকেলে ভারতীয় বিমান বাহিনীর মিগ-২৯ যুদ্ধবিমানের ১৫ ফুট লম্বা স্টিল ফুয়েল ট্যাংক বিমান থেকে খুলে যায় এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গোয়ালতোড় থানার অধীনস্ত জঙ্গলে পড়ে। এই জঙ্গল থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে কালাইকুন্ডাতে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ঘাঁটি রয়েছে।

পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার ধৃতিমান সরকার বলেছেন, গ্রামবাসীরা প্রথম আকাশে উড্ডয়নরত বিমানগুলো দেখতে পায় এবং তারপর বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে ধাতব জ্বালানি ট্যাংকটির সন্ধান পায়। লম্বায় ১৫ ফুট এই ট্যাংকটির ব্যাস প্রায় চার ফুট।

প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত কলাইকুন্ডা ঘাঁটি থেকে বিমান বাহিনীর কর্মকর্তারা না আসা পর্যন্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে ট্যাংকটিকে পাহারা দিয়ে সুরক্ষিত রাখে। এই ঘটনায় কেউ আহত হয়নি বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা মুখপাত্র এই ঘটনা নিশ্চিত করেছেন যে, অতিরিক্ত জ্বালানি বহনকারী ট্যাংকটি সত্যিই প্রশিক্ষণ মিশনের সময় মিগ-২৯ ফাইটার জেট থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল এবং এর পেছনে কারণ খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত শুরু করা হয়েছে।

কলকাতার প্রতিরক্ষা মুখপাত্র বলেছেন, ‘ভারতীয় বিমান বাহিনীর মিগ-২৯ এয়ারক্রাফটটি নিয়মিত প্রশিক্ষণ মিশনে ছিল। কালাইকুন্ডা এয়ারবেসে ফিরে আসার সময়, অতিরিক্ত জ্বালানি বহনের জন্য ব্যবহৃত ভেন্ট্রাল ড্রপ ট্যাংকটি ভেঙে পড়ে এবং কেকেডি এয়ারবেসের কাছে জনবসতিহীন জঙ্গলে পড়ে যায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘এতে কোনও প্রাণহানি বা সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। খুলে পড়া ট্যাংকটি পাওয়া গেছে এবং সিভিল প্রশাসনের সাথে সমন্বয় করে কেকেডিতে আনা হচ্ছে। ঘটনার কারণ খুঁজে বের করার জন্য তদন্ত চলছে।’

ঊষার আলো-এসএ