উপহারের ঘর পাইয়ে দেয়ার চাঁদাবাজিতে প্রতারকের কারাদণ্ড

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো রিপোর্ট : বগুড়া জেলার নন্দীগ্রামে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাইয়ে দেয়ার নামে চাঁদাবাজিতে এক প্রতারক ধরা পড়েছে। স্থানীয়দের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা করে আদায় করতো এ প্রতারক আবদুর রহমান (৫০)। সে নন্দীগ্রাম উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের ধুন্দার গ্রামের মৃত আবদুল কাদের ছেলে। সোমবার (৪ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়নের কুন্দারহাট থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রায়হানুল ইসলামের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতারক আবদুর রহমান দুপুরে কুন্দারহাট এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাইয়ে দেয়ার নাম করে মানুষের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা চাঁদা আদায়ের চেষ্টা করছিলেন। গ্রামবাসীদের সন্দেহ হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সদুত্তোর দিতে না পারায় তাকে আটক করে জরুরি সেবা ‘৯৯৯’-এ কল দিয়ে পুলিশকে অবহিত করে। তখন পুলিশ এসে প্রতারক আবদুর রহমানকে আটক করে।

নন্দীগ্রাম থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, ঘটনাটি টাউট আইন ১৮৭৯ এর ৬ ধারায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয়। সেখানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রায়হানুল ইসলামের আদালত ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেন।

আদালত জানান, আব্দুর রহমান প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর ও একটি বাড়ি একটি খামারের ঋণ পাইয়ে দেয়ার কথা বলে স্থানীয়দের কাছ থেকে টাকা তুলেছেন। এ কথা তিনি স্বীকার করেছেন। তাই তাকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)