কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ট্রেন্ডারে অনিয়মের প্রতিবাদে ঠিকাদারদের বিক্ষোভ মিছিল

সর্বশেষ আপডেটঃ

শেখ বদরউদ্দিন : খুলনা কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে গত ৩০ সেপ্টেম্বর টেন্ডার ষ্টোরে রক্ষিত সরকারি মেশিনপত্র ও অন্যান্য লৌহজাত মালামালের টেন্ডার হয়। উক্ত টেন্ডারে সকল নিয়মনীতি উপেক্ষা করে টেন্ডার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে এমন অভিযোগে রবিবার (৩ অক্টোবর) বেলা ১১টায় জেলা ঠিকাদারবৃন্দদের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

মানবন্ধন শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করে সংক্ষিপ্ত পথসভার মাধ্যমে শেষ হয়। সভায় বক্তারা বলেন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষন ব্যুরো উপ পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বেআইনিভাবে সরকারি সকল নিয়মনীতি উপেক্ষা করে জাতীয় পত্রিকা ও স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশ না করে নিজের পছন্দের ঠিকাদারদের ৬০ লক্ষাধীক টাকার মালামাল ১০ লাখ ৬০ হাজার টাকায় পাইয়ে দিয়েছে।

বক্তারা বলেন, কোটেশনের বিধিনুযায়ি ১ টাকা থেকে ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত কোটেশন (নোটির্শ বোর্ড) এর মাধম্যে টেন্ডার দেয়ার নিয়ম থাকলেও, ১০ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা কোটেশন নোটির্শ বোর্ড এর মাধ্যমে টেন্ডার দিয়েছে। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো উপ পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন তার নিজস্ব সিন্ডিকেট এর মাধ্যমে ৮টি দরপত্র বিনামূল্যে ড্রপিং বিতরন করে। নিয়মমাফিকভাবে টেন্ডার আহবান করলে ২ থেকে ৩ লক্ষ টাকার সিডিউল বিক্রি হতো। এতে করে সরকারের রাজস্ব আয় হতো।

বক্তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন অনতিবিলম্বে টেন্ডার বাতিলপূর্বক পুনরায় সরকারি নিয়মমেনে টেন্ডার আহবান ও জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো উপ পরিচালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে খুলনা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এ সময় বক্তব্য রাখেন ইউপি সদস্য এনামুল কবির, সুভাষ দত্ত, শানু মিয়া, আঃ সালাম, আঃ জব্বার, মনির হোসেন, মোঃ ইকবাল হোসেন, মোঃ শফি, রাম, লিটন, সালাম মোড়ল, আবুল কাশেম, সাগর দত্ত, শেখ রেজাউলসহ জেলার ঠিকাদারবৃন্দ।

(ঊষার আলো-এমএনএস)