কেশবপুরে ঘেরের পানি উপচে জলাবদ্ধতা

সর্বশেষ আপডেটঃ

পরেশ দেবনাথ, কেশবপুর : কেশবপুর উপজেলার মঙ্গলকোট ইউনিয়নের ছোট পাথরা গ্রামের মৎস্য ঘেরের উপচে পড়া পানি শেখ পাড়ার বসত বাড়িতে উঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে নিম্নাঞ্চলে কয়কটি বাড়িঘর। এলাকাবাসীর অভিযোগ মৎস্য ঘেরের পানি উপচে পড়ে জলাবদ্ধার সৃষ্টি হয়েছে। এই রকম আগে কখনো হয়নি। পানি দ্রুত নিষ্কাশনের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

ছোট পাথরা গ্রামের আনিছুর সরদার, মনছুর সরদার, হাফিজুর সরদার, মান্নান সেখ, হান্নান সেখ, মোসলম শেখ, সাদেক শেখের বাড়ীতে পানি উঠে গেছে। এলাকার ছোহরাব হোসেন বলেন, কামরুল ইসলামের ঘেরের পানি উপছে পড়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

ওই গ্রামের সোকিনা বেগম (৮৬) বলেন, আমার জীবনে এখানে কোন দিন পানি উঠতে দেখিনি। কারা ঘের করিছে এইবার পানিতি বাড়ি ঘর তলায় গেছে। মোসলেম সানা বলেন, আমি ঘের মালিক কামরুল ইসলামকে পানি সরানোর কথা বলি কিন্তু শোনেনা। এহেন মৎস্য ঘের মালিকদের অবহেলার কারণে বসত বাড়িতে পানি উঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। আমাদের দাবী,প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পানি সরানো ব্যবস্থা করা হলে আমরা বসবাস করতে পারি। এলাকা ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান জানান, আমি বিষয়টি বলেছি।

মঙ্গলকোট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন বলেন, দ্রুত এর ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

মৎস্য ঘের মালিক ইউনিয়নের কেদারপুর গ্রামের কামরুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, ঘেরের পানি সরানোর ব্যাবস্থা ছিল কিন্তু নদীর মাটি কাটার ফলে সেটি বন্ধ হয়ে যায়। পানি সরানোর ব্যাবস্থা করেছি, পানি সরছে, আগামীকালের মধ্যে সরে যাবে। আমিও মানুষের ব্যথা বুঝি।

(ঊষার আলো-এমএনএস)