বিবৃতিতে মহানগর বিএনপি

কেসিসি’র খামখেয়ালীপনা ও দূরদর্শিতার অভাবে নগরবাসীর দুর্ভোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : আধা ঘন্টা বৃষ্টিতে খুলনা শহর ডুবন্ত নগরীতে পরিণত হওয়ার কারণ খুঁজে বের করে দ্রুত পানি অপসারণের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছে খুলনা মহানগর বিএনপি। বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) প্রদত্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ নগরীর জলাবদ্ধতা প্রধান সমস্যা এবং জলাবদ্ধতা নিরসনে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচনী ইশতেহারের অঙ্গীকার গত ৩ বছরেও বাস্তবায়িত না হওয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেছেন জনগণের শত-শত কোটি টাকায় ড্রেন নির্মাণ করে যদি পানি নিষ্কাশন না হয় তাহলে বুঝতে হবে টাকা জলে যাচ্ছে।

বিএনপি মনে করে সিটি কর্পোরেশনের খামখেয়ালীপনা ও অদুরদর্শিতায় নগরবাসীর দুর্ভোগ দিনের পর দিন বেড়েই যাচ্ছে। অল্প বৃষ্টিতেই নগরীর সিংহভাগ তলিয়ে যাওয়া ও ১০/১২ ঘন্টায় পানি নেমে না যাওয়ায় প্রমাণ করে সমস্যা সমাধানে বাস্তব কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়ন প্রয়োজন। প্রতি বছর বৃষ্টির পানিতে শহর তলিয়ে যাওয়ায় নগরবাসীর সম্পদ ও রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

অপরিকল্পিতভাবে জলাবদ্ধতার সমস্য সমাধানে সিটি কর্পোরেশন রাস্তা উচু করার কারণে ড্রেনের পানি মানুষের বসত বাড়িতে প্রবেশ করে প্রত্যেক বাড়ির নীচতলা নর্দমায় পরিণত হচ্ছে। নগরীর এ জলাবদ্ধতা নিরসনে যেমন দরকার পাকা চওড়া ড্রেন, একই সাথে শহর থেকে পানি দ্রুত বের হওয়ায় পথ প্রস্তুত করা। সেক্ষেত্রে খাল দখল মুক্ত করা এবং ড্রেনের উপরে অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করা এখন সময়ের দাবি। এছাড়া আগামী একশত বছরের ভাবনা সামনে রেখে নগরীতে সুয়ারেজ ব্যবস্থার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ আধুনিক ড্রেনেস ব্যবস্থা গড়ে তোলার পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে। নেতৃবৃন্দ আশা করেন জনভোগান্তি দুর করতে খুলনা সিটি কর্পোরেশন অনতি বিলম্বে দুরদর্শিতার পরিচয় দেবে।

বিবৃতিদাতা নেতৃবৃন্দরা হলেন, মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, এড. বজলুর রহমান, এড. এস আর ফারুক, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মো. মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এস এম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

(ঊষার আলো-এমএনএস)