খুমেক হাসপাতালে ফার্মাস্টিটের বিরুদ্ধে নিয়ম বহির্ভুত ওষুধ মওজুদের অভিযোগ

সর্বশেষ আপডেটঃ
KMCH_Ualo
ছবি : খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল - সংগৃহিত

ঊষার আলো প্রতিবেদক : খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট এস এম আব্দুল মফিজের বিরুদ্ধে হাসপাতালের সরকারি ওষুধ রোগীদের না দিয়ে নিজের কাছে মওজুদ রাখার সত্যতা পাওয়া গেছে। গত শনিবার হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ বহি: বিভাগের ফার্মিিসতে ওষুধের স্টক মিলাতে গিয়ে এই অনিয়ম ধরা পড়ে।

খুমেক হাসপাতালের সূত্র মতে, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট এস এম আব্দুল মফিজ হাসপাতালের বহি:বিভাগের ফার্মাসির ইনচার্জ হিসেবে দায়িত্ব পান। গত ১৯ মার্চ তাকে ওই দায়িত্ব থেকে হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ সরিয়ে দেন। কিন্তু ফার্মাসির এর দুইটা আলমারি চাবি তিনি বর্তমানে ইনচার্জকে তখনও বুঝিয়ে দেননি। পরে হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ ফার্মাসিতে গিয়ে একটি আলমারিতে দামী কয়েকটি ওষুধ জব্দ করেন। এর মধ্যে ফুকোস ১ হাজার ২শ, সেফিক্সি, কোপিডসহ আরো ওষুধ জব্দ করেন।

জানা গেছে, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের থাকা অবস্থায় ফার্মাসিস্ট এস এম আব্দুল মফিজের বিরুদ্ধে সরকারি ওষুধ অবৈধভাবে পাচারের অভিযোগে ছিলো। ৭-৮ বছর আগে পুলিশের একটি টিম সরকারি ওষুধসহ একজন কে আটক করেছিলো। ওই ছেলের স্বীকারোক্তিতে তৎকালীন ফার্মাসিস্ট ইনচার্জ এস এম আব্দুল মফিজের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিলো। ফার্মাসিস্ট মফিজ খুমেক হাসপাতালে ইনচার্জ থাকাকালীন বহি: বিভাগের রোগীদের ওষুধ সরিয়ে বিভিন্ন সময় নিজের কাছে রক্ষিত রাখতেন। কিন্তু কাগজ-কলমে আমার রোগীদের দেওয়ার বিষয় উল্লেখ থাকলো।

হাসপাতালের পরিচালক ডা: এটি এম মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, বিষয়টি তদন্তে আছে। এর সাথে আর কেউ জড়িত আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।