গুড নেইবারস বাংলাদেশের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

সর্বশেষ আপডেটঃ

বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকা : আজ ১৮ আগষ্ট আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গুড নেইবারস বাংলাদেশের (জিএনবি) ২৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এই প্রতিষ্ঠানটি শিশু, নারী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির উন্নয়নে ১৯৯৬ সালের ১৮ আগষ্ট বাংলাদেশে উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু করে। করোনা মহামারিকালেও তারা বিশেষ ভূমিকা রাখছে। ২৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিক উপলক্ষে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর এম মাঈনউদ্দিন মইনুল সকল শিশু, কমিউনিটি, এনজিও বিষয়ক ব্যুরো, সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, দাতা সংস্থা, সাপোর্ট কান্ট্রি এবং অন্যান্য পার্টনার ও শুভাকাঙ্খীদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন। তিনি প্রতিষ্ঠানের প্রয়াত কর্মকর্তা-কর্মচারী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের কৃতজ্ঞ চিত্তে স্মরণ করেছেন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ক্ষুধা ও বৈষম্যমুক্ত বিশ্ব গঠন করাই গুড নেইবারসের লক্ষ্য। শিশু উন্নয়ন, শিক্ষা, নারীর ক্ষমতায়ন, স্বাস্থ্যসেবা ও যুব উন্নয়নের মাধ্যমে তারা পুরো কমিউনিটির উন্নয়ন করতে চায়। এছাড়াও জরুরী প্রয়োজনে ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির বিশেষ করে শিশু ও তাদের পরিবারের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে কাজ করছে।

জানা যায়, প্রাথমিক পর্যায়ে গ্রাম এবং শহরের শিশুদের ‘প্রাথমিক শিক্ষা’ এবং বস্তি এলাকায় ‘মা ও শিশুদের যতœ প্রকল্পের মাধ্যমে গুড নেইবারস কার্যক্রম শুরু করে। বর্তমানে সারাদেশ জুড়ে ১২টি জেলায় ১৬টি প্রকল্প এলাকায় প্রায় ২১ হাজার শিশু এবং তাদের পরিবারকে সরাসরি সেবা দিয়ে যাচ্ছে সংস্থাটি। পাশাপাশি ইউনিসেফ, ডব্লিউএফপি, কোইকা, স্যামসাং জাপান প্লাটফর্মের সহায়তায় ঢাকা, কক্সবাজার, কুঁড়িগ্রাম, দিনাজপুর, ঢাকা ও পটুয়াখালী জেলায় বিশেষ প্রকল্প পরিচালনা করছে। সংস্থাটি শিশু, নারী ও যুবক (ইয়ুথ গ্রুপ)-এই তিনটি জনগোষ্ঠীকে বিপদাপন্ন বলে বিবেচনা করে। এরমধ্যে শিশুই সকল কার্যক্রমের কেন্দ্র এবং শিশু উন্নয়ন কর্মসূচিকে কেন্দ্র করেই পরিচালিত হয় সমাজ উন্নয়ন তথা কমিউনিটি ডিভেলপমেন্ট কর্মসূচি। শিশুদের পাশাপাশি জিএনবি নারী’কে একটি কর্মক্ষম ও অধিকার সচেতন জনগোষ্ঠী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করে কমিউনিটিকে টেকসই উন্নয়নের জন্য প্রস্তুত করে তুলতে চায়। দুর্দশাগ্রস্থ নারীদের দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়ন বৃদ্ধি করে আসছে সংস্থাটি। স্থানীয় প্রতিনিধিদের নেতৃত্ব বিকাশের মাধ্যমে জনগোষ্ঠির আর্থ সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি জিএনবি নারীদের বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থার করে থাকে। কারণ জিএনবি বিশ্বাস করে একমাত্র দক্ষতা উন্নয়ন বা যোগ্যতা বৃদ্ধির মাধ্যমেই দারিদ্রচক্র থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব। মা ও শিশুদের স্বাস্থ্য সেবার মান উন্নয়নের জন্য গুড নেইবারস চিকিৎসা প্রদানের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক বিভিন্ন ধরণের প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় মাতৃস্বাস্থ্যের সার্বিক উন্নয়নের জন্য কমিউনিটি হেলথ ওয়ার্কার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। এছাড়াও সংস্থটি দুর্যোগ প্রস্তুতি ও প্রশমন, জরুরী ত্রাণ সহায়তা, গৃহায়ণ ও দূর্যোগ সংক্রান্ত অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, করোনা মহামারীতে গুড নেইবারস কর্মীরা ও কমিউনিটি একশন টিম সম্মুখ সারিতে থেকে সচেতনতা তৈরি, জরুরী খাদ্য সহায়তাসহ জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করছে। সংস্থার পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত ৪৬ হাজার ৩৯৬টি পরিবারকে জরুরী খাদ্য সহায়তা এবং তিনটি জাতীয় হাসপাতালে সুরক্ষা সামগ্রী, অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ও সেম্পল কালেকশন বুথ দেওয়া হয়েছে। সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য জিএনবি’র স্বেচ্ছাসেবকরা অডিও ম্যাস ক্যাম্পেইন পরিচালনা ও বিশেষ বার্তা সম্বলিত গান প্রচার করছে।