ঘের করার জন্য ১৭টি সরকারি গাছ কর্তন

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : যশোরের ঝিকরগাছায় মাছের ঘের করার জন্য রাস্তার সরকারি ১৭টি বাবলা গাছ কেটে দিলেন মনিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। সে উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের বাঁকড়া গ্রামের মাস্টার রবিউল ইসলামের ছেলে। ঘটনায় গাছের কাঠ জব্দ ও তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন।
জানা যায়, উপজেলার বাঁকড়া গদ্দুর মোড় হতে খলশী সড়কের বিলকচুয়ায় মধ্যে পিচের রাস্তার পাশ দিয়ে ঘের কাটার জন্য সরকারি ১৭টি বাবলা গাছ কেটে দিয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় এক লক্ষ টাকা। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানালে তিনি গাছগুলো জব্দ এবং তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেন। বর্তমানে কাঠগুলো বাঁকড়া ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে রাখা হয়েছে।
এ ব্যাপারে ঘের মালিক মনিরুল ইসলাম জানান, স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানিয়ে তিনি গাছ কেটেছেন।
ইউপি সদস্য রমজান আলী জানান, সরকারি গাছ কাটার আগে সরকারিভাবে অনুমতি নিতে হয় এবং সেটা টেন্ডার প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কাটা হয়। কিন্তু কোনো নিয়ম না মেনেই ঘের মালিক মনিরুল ইসলাম গাছ কেটেছে। এটা আইনগতভাবে অপরাধ। তিনি আরো জানান, রবিউল ইসলাম ও তার ছেলে মনিরুল ইসলাম এর আগেও একবার সরকারি গাছ কেটেছিল কিন্তু মুক্তিযোদ্ধার বরাত দিয়ে বেঁচে যায়। কোন কিছুই হয় না।
ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নিছার আলী জানান, আমার কাছে এসেছিল কিন্তু আমি গাছ কাটার কথা বলেনি। তবে তিনি বলেন, মনিরুল ইসলামের পিতা রবিউল ইসলাম একজন মুক্তিযোদ্ধা। কি করা যাবে বলেন। একজন মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে কিছু বলা যায়? এজন্য আমি কয়েক জায়গায় তাকে নিয়ে সুপারিশ করেছি।
যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরাফাত রহমান জানান, বিষয়টি জানার পরে গাছের কাঠগুলো জব্দ করা হয়েছে। তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)