UsharAlo logo
রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদখালীর অবৈধ কয়লা তৈরীর কারখানা বন্ধ করে দেওয়ায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে হুমকি

usharalodesk
মার্চ ১৪, ২০২১ ৮:৪১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : পাইকগাছার চাঁদখালীর অবৈধ কয়লা তৈরীর কারখানা বন্ধ করে দেওয়ায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ শাহরিয়ার হক’কে হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় জিডি হয়েছে।

প্রাপ্ত অভিযোগে জানাগেছে, জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের তত্ত্বাবধায়নে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ শাহরিয়ার হক ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সহযোগিতায় বৃহস্পতিবার উপজেলার মাহমুদকাটী ও চাঁদখালীতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। অবৈধভাবে কাঠ পুড়িয়ে কয়লা তৈরীর কারখানা পরিচালনার মাধ্যমে এলাকার পরিবেশ দুষণ করার অভিযোগে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ার হক চাঁদখালীতে গড়ে ওঠা ৬টি কয়লা তৈরীর কারখানা বন্ধ করে দেন। প্রশাসনের এমন অভিযানে এলাকার সর্বস্তরের মানুষ সাধুবাদ জানালেও মেনে নিতে পারেনি কতিপয় ব্যক্তিরা। অভিযান শেষে ফেরার সময় পথিমধ্যে ০১৮৩৭-৫২৭২১৯ ও ০১৬৮৬-৩৯৫০০৭ নং দুটি নাম্বার থেকে শহীদ গাজী নামে জনৈক ব্যক্তি কয়লা চুল্লির মালিক পরিচয় দিয়ে কেন চুল্লি বন্ধ করা হলো মর্মে শাহরিয়ার হকের নিকট জানতে চান। এবিষয়ে কথা বলার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে যোগাযোগ করার কথা বলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। পরের দিন ১২ মার্চ সন্ধ্যার দিকে ০১৭১২-৮৮৫৯১৩ ও ০১৪০১-১৭৫০১৫ নং দুটি নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে এসিল্যান্ড শাহরিয়ার হকের নিকট আক্রমনাত্মক ভাষায় কেন চুল্লি নষ্ট করা হলো এবং কার নির্দেশে এটি করা হলো জানতে চায়, পাশাপাশি এলাকার সকল চুল্লি ধ্বংস করা না হলে এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে মর্মে হুমকি দেয়। এ ঘটনায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ শাহরিয়ার হক পাইকগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। যার নং- ৭১২, তাং- ১২/০৩/২০২১ ইং।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী ও ওসি এজাজ শফী জানান, মোবাইল নাম্বার অনুসরণ করে হুমকিদাতাদের খোঁজা হচ্ছে। আশা করছি খুব দ্রুত গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।