চুয়াডাঙ্গায় নববধূর শরীরে ছিটানো হলো মদ

সর্বশেষ আপডেটঃ
58
0

ঊষার আলো রিপোর্ট : বাঁশফোঁড় সম্প্রদায়ের মেয়েকে ডোমের ছেলে বিয়ে করার কারণে নানা হেনস্তার শিকার হতে হচ্ছে। হয়রানির শিকার হচ্ছে রিতা-হৃদয় দম্পতি। তাদের পবিত্রতার কথা বলে সমাজপতিরা প্রকেশ্যে বিচারের নামে পরপুরুষের সামনে নববধূর শরীরে ছিটিয়ে দিয়েছে বাংলা মদ। অন্য সম্প্রদায়ের মেয়েকে বিয়ে করায় একঘরে করে রাখার মতো ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে তাদেরকে। নির্যাতিতার পরিবার প্রতিকার চেয়ে এ বিষয়ে শুক্রবার লিখিত আবদেন করেছে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবর।
জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সাতগাড়িপাড়ার স্বর্গীয় বিরু ডোমের ছেলে হৃদয় ডোমের সঙ্গে প্রায় ২ মাস আগে বিয়ে হয়েছে বড়বাজার মাথাভাঙ্গা ব্রিজ এলাকার কালীচরণের মেয়ে রিতা বাঁশফোঁড়ের সঙ্গে। বিয়ের বিষয়টি ডোম সমাজের লোকজন জানতে পেরে ২৩ মার্চ রাতে বিচার সালিশ বসায়। বিচারে বাদল, রতন, চলুয়া, দুখু, হিরুসহ বেশ কয়েকজন মিলে নববূকে পবিত্র করার নামে শতাধিক পুরুষের সামনে বাংলা মদ ছিটিয়ে দেওয়া হয়েছে। সালিশে তাদের ৬ হাজার টাকাও জরিমানা করা হয়েছে।
আগামী ২০ দিনের মধ্যে দেশের ডোম সম্প্রদায়ের নেতাদের দাওয়াত করে খাওয়াতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে সালিশকারীরা। এসব নিয়মকানুন মেনে না চললে তাদের একঘরে করে রাখারও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে ওই বিচার থেকে। রিতা-হৃদয় দম্পতি ও তাদের পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনযাপন করছে।
নির্যাতিতার পরিবার বিষয়টি লিখিতভাবে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে জানিয়েছে।
স্বর্গীয় বিরু ডোম বলেছেন, বুঝতে পারলাম না কেন বিচারের মুখোমুখি হতে হচ্ছে ছেলে ও তার বউকে। সমাজে নানাভাবে হেয় করা হচ্ছে বিচারের নামে। এর প্রতিকার দাবি করছি প্রশাসনের কাছে। বিচারের নামে নববধূর শরীরে বাংলা মদ ছিটানো হয়েছে। নারীর সম্মানহানি করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের সভাপতি ডা. মার্টিন হিরোক চৌধুরী বলেছেন, বিষয়টি আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি। আমরা নিজেরা বিভক্তিতে কেন জড়াব। বিচারের নামে এগুলো করা যাবে না।

(ঊষার আলো- এম.এইচ)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ