জেপির ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দনের ইন্তেকাল

সর্বশেষ আপডেটঃ
প্রয়াত চন্দন - ফাইল ছবি

ঊষার আলো প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টি-জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য, খুলনা নাগরিক ফোরামের চেয়ারপারসন শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন (৭০) ইন্তেকাল (ইন্নালিল্লাহি—রাজিউন) করেছেন। বৃহস্পতিবার (১১ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে নগরীর গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দনের ছেলে শরীফ শাহরিয়ার হোসেন তার মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করেন।
মাস খানেক আগে শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বিকালে তাকে খুলনার বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন রেখে গেছেন। শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন ১৯৭৩ সালে খুলনা সরকারি ব্রজলাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএল) কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি খুলনা মহানরীর পাবলার স্বনামধন্য শিক্ষক আবুল কাশেমের ছেলে।

জেপি চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদকের শোক
জাতীয় পার্টি-জেপি চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু এমপি এবং সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী শেখ শহীদুল ইসলাম এক বিবৃতিতে পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও মরহুমের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
এদিকে জাতীয় পার্টি-জেপির ভাইস চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দনের মৃত্যুতে জেপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম. এস রাশিদা করিম,খুলনা জেলা জাতীয় পার্টি-জেপির সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ, সহসভাপতি ড. এস এম জাকারিয়া, গাজী আব্দুস সামাদ, ইঞ্জিনিয়ার শরিফুল ইসলাম, মহানগর জেপির সভাপতি কাজী মাসুদ আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক ডা. এম এন আলম, মহানগর জেপির সিনিয়র সহসভাপতি শফিকুল ইসলামসহ জেপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ মরহুমের পরিবারের প্রতি গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন।