ঝিনাইদহের পাট চাষিরা শঙ্কায়

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো রিপোর্ট : ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার পাট চাষিরা দাম নিয়ে শঙ্কায় দিনাতিপাত করছে। এবার ঝিনাইদহে পাটের আবাদ ভালো হয়েছে। এবার উপজেলায় ৩ হাজার ৫শ’ হেক্টর জমিতে পাট আবাদ করেছে চাষিরা। লক্ষ্যমাত্রার সমতুল্য পাট চাষ হয়েছে। বর্তশানে পাট কাটতে, পানিতে জাগ দিতে ও পাট থেকে পাটের আঁশ ছড়াতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে পাট চাষিদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, গত বছর পাটের দাম ভালো হওয়ায় পাট চাষে আগ্রহ বাড়েছে। তবে চলতি মৌসুমে এখন পর্যন্ত পাটের বাজার ভালো থাকলেও শেষ পর্যন্ত থাকবে কিনা এ নিয়ে শংকায় পড়েছে তারা।

কোটচাঁদপুর উপজেলার কুশনা ইউনিয়নে মুরুটিয়া গ্রামের এর পাট চাষি ফারুক মেম্বার বলেন, আগে পাটের ভালো দাম না পাওয়ায় অন্য ফসলের দিকে ঝুকেছিলেন। কিন্তু দু’বছর পাটের দাম ভালো পাচ্ছি। বিশেষ করে গত বছর প্রতিমণ পাট বেশি দামে বিক্রি করতে পেরেছি। এ কারণে চাষিরা আবারও পাট আবাদের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। চলতি মৌসুমী পাট চাষের জন্য আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় পাট ভালো হয়েছে।

মুরাদ হোসেন নামে এক পাট চাষি জানান, চলতি বছরে নতুন পাটের প্রতিমণ বর্তমান বাজার দাম ২ হাজার ২ শত থেকে ২ হাজার ৫ শত টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজারে যথেষ্ট পরিমাণে পাট উঠা শুরু হলে দাম কেমন হবে সে বিষয়ে আশঙ্কায় আছি।

কোটচাঁদপুর শহরের পাট ব্যবসায়ী জাহিদুর রহমানের সাথে কথা বলে জানা গেছে, তারা বর্তমানে প্রতি মণ পাট ২ হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকা দরে কিনছেন।

কোটচাঁদপুর উপজেলা কৃষি অফিসার মহাসিন আলী’র কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান এই মৌসুমে কোটচাঁদপুর উপজেলায় ৩ হাজার ৫শ’ হেক্টর জমিতে পাট আবাদ করেছে চাষিরা। আমাদের লক্ষ্যমাত্রার সমতুল্য পাট চাষ হয়েছে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)