সরকারিসেবায় ‘৩৩৩’ কলসেন্টারের প্রচারণায় প্রেসব্রিফিং

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বর্তমান সরকারের লক্ষ্য ছিলো সহজে সেবাপ্রাপ্তি- ডিসি

সর্বশেষ আপডেটঃ
ছবি : ৩৩৩ পরিষেবার মাধ্যমে অভিযোগ গ্রহণ, তথ্য প্রদান, সামাজিক সমস্যার সমাধান এবং খাদ্য ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদান সম্পর্কিত প্রেসব্রিফিং অনুষ্ঠিত।

ঊষার আলো ডেস্ক : ‘৩৩৩’ পরিষেবার মাধ্যমে অভিযোগ গ্রহণ, তথ্য প্রদান, সামাজিক সমস্যার সমাধান এবং খাদ্য ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদান সম্পর্কিত প্রেসব্রিফিং আজ (বুধবার) দুপুরে খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। প্রেসব্রিফিং-এ প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদার।

জেলা প্রশাসক জানান, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বর্তমান সরকারের প্রধান লক্ষ্যই ছিলো সহজে সেবাপ্রাপ্তি। সরকারের সকল সুবিধা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে চালু হয়েছে ৩৩৩ কল সেন্টার। মানুষ যে কোন সমস্যায় তাৎক্ষণিক সমাধানের জন্য এই নম্বরে কল দিলেই পাবেন নির্দিষ্ট সরকারি সেবা।

জেলা প্রশাসক বলেন, প্রচারণার মাধ্যমে মিডিয়ার কর্মীরা ৩৩৩ নম্বরটিকে সকলের মাঝে জনপ্রিয় করে তুলবেন। বর্তমানে নাগরিকগণ ‘৩৩৩’ নম্বরে কল করে সরকারি সেবা প্রাপ্তির পদ্ধতি, জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে যোগাযোগের তথ্য, পর্যটন আকর্ষণযুক্ত স্থানসমূহ এবং জেলা সম্পর্কিত তথ্য জানতে পারছেন।

৩৩৩ কল সেন্টারে দিন-রাত ২৪ ঘন্টা ও সপ্তাহে সাত দিন কল করা যাবে। এই হেল্পলাইনে ডায়াল করলে বিভিন্ন সেবা পাওয়া যাবে। ভূমি সম্পর্কিত ও ভূমি অফিসের যাবতীয় নাগরিক তথ্য কলসেন্টার থেকেই পাওয়া যাবে। ভোক্তা অধিকার সম্পর্কিত বিষয়, যেমন ভেজাল পণ্য উৎপাদন/বিক্রি সংক্রান্ত অভিযোগ করা ও তথ্য দেওয়া যাবে। বাল্যবিবাহ, যৌতুক, ইভটিজিং ইত্যাদি সামাজিক সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য সমাধান চাওয়া যাবে। প্রাকৃতিক দুর্যোগেও তথ্য সেবা দেবে ৩৩৩ কলসেন্টার। চোরাচালান, মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়, জুয়া, পরিবেশ দূষণ, সরকারি সম্পদ দখল বা চুরি সম্পর্কিত তথ্য দেয়া ছাড়াও নাগরিকগণ নিজেদের এলাকাতে এ ধরণের ঘটনা ঘটতে দেখলে কলসেন্টারে জানাতে পারবেন।

কলসেন্টার ‘৩৩৩’ এর প্লাটফর্মের ম্যাধমে আবেদন করায় বর্তমানে কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষকে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রয়োজনীয় খাদ্যসহায়তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, ৩৩৩ কলসেন্টারের মাধ্যমে খুলনার নয়টি উপজেলায় প্রায় পাঁচ হাজার সাতশত ৩১ উপকারভোগীর মাঝে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে।

খুলনা জেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রেসব্রিফিং-এ খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার জিনাত আরা আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ সাদিকুর রহমান খান ও খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেন বক্তৃতা করেন। এসময় ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ারকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

(ঊষার আলো-আরএম)