তেঁতো করোলায় মিষ্টি হাসি

সর্বশেষ আপডেটঃ

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : তেঁতো করোলা চাষ করে গোপালগঞ্জের হাজারও কৃষকের মুখে এখন মিষ্টি হাসির ঝিলিক। জেলার সদর উপজেলার রেঘুনাথপুর, সিলনা ও টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গুয়াধানা, বর্ণি এবং রুপহাটি গ্রামের মাঠ জুড়ে শূধু করোলা আর করোলা। যেদিক চোখ যাবে সেদিকে শুধু সবুজ ক্ষেত। দুর থেকে মনে হবে কে যেন সবুজ কার্পেট বিছিয়েছে। এসব করোলা ক্ষেতে ভোর বেলায় তৈরী হয় এক অন্যন্য পরিবেশ। নারী-পুরুষ এক সাথে করোলা সংগ্রহের কাজ করে থাকেন। বিস্তীর্ন ক্ষেতের মাঝে করোলা সংগ্রহের এ দৃশ্য দেখতেও মনমুগ্ধকর।
জেলায় এ বছর ৪শ’ হেক্টর জমিতে উচ্ছে বা করোলা চাষ করা হয়েছে। এরমধ্যে বেশীর ভাগ করোলাই চাষ হয়েছে টুঙ্গিপাড়া উপজেলার সিলনা ও গুয়াধানা গ্রামে। গ্রামের প্রায় প্রতিটি কৃষকই তাদের জামিতে করোলার চাষ করেছেন। এ বছর আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবং করোলার কোন রোগ বালাই না হওয়ায় ফলন ভাল হয়েছে। করোলা চাষ করে এ এলাকার অন্তত ১ হাজার পরিবারে এসেছে আর্থিক স্বচ্ছলতা। শুধু তাই নয় এ এলাকার করোলা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে চলে যাচ্ছে ঢাকাসহ বাইরের জেলাগুলোতে। করোলা কেনা-বেচার জন্য সিলনা গ্রামে অস্থায়ী বাজারও গড়ে উঠেছে।
এলাকার কৃষকেরা জানান, ফলন ভাল হয়েছে। এ বছর দামও ভাল পাচ্ছি। প্রতি কেজি ৬০ টাকা থেকে ৭০ টাকা করে পাইকারী বিক্রি করছি। এ মৌসুমে করোলার চাষ করে আমরা ভালো লাভ পেয়েছি।

(ঊষার আলো-এমএনএস)