ধর্ষণের পর দুই নারী হত্যা : দুই আসামির ফাঁসি কার্যকর রাতে

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় দুই নারীকে ধর্ষণের পর হত্যার অপরাধে দন্ডপ্রাপ্ত ২ আসামীর ফাঁসি সোমবার(৪ অক্টোবর)রাতে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে কার্যকর করা হবে। আজ রাত পৌনে ১১টায় ফাঁসি কার্যকরের জন্য সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার তুহিন কান্তি খান বিষয়টি নিশ্চত করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত  দুই আসামী হলেন, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার খাসকররা ইউনিয়নের রায়লক্ষ্মীপুর গ্রামের আলী হিমের পুত্র মিন্টু ওরফে কালু (৫০) ও একই এলাকার বদর ঘটকের পুত্র আজিজ ওরফে আজিজুল (৫০)।

জানা গেছে, ২০০৩ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর আলমডাঙ্গা জোড়গাছা হাজিরপাড়ার কমেলা খাতুন ও তার বান্ধবী ফিঙ্গে বেগমকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ ও গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়।

এঘটনায় নিহত কমেলা খাতুনের মেয়ে নারগিস বেগম পরদিন আলমডাঙ্গা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় আলমডাঙ্গা থানা এলাকার মিন্টু ওরফে কালু, আজিজুল, সুজন ও মহিকে আসামি করা হয়। মামলা বিচারাধীনসময়ে আসামি মহি মারা যায়। এরপর ২০০৭ সালের ২৬ জুলাই চুয়াডাঙ্গার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক আজিজুল, সুজন,  ও মিন্টুর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।

পরে আসামিপক্ষ হাইকোর্টে আপিল করেন। ডেথ রেফারেন্স ও আসামিদের আপিল শুনানি শেষে ২০১২ সালে ১১ নভেম্বর নিম্ন আদালতের রায় বহাল রাখার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এ বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি আপিল বিভাগ ২ আসামির রায় বহাল রাখেন। অপর আসামি সুজনকে খালাস দেন। গত ২০ জুলাই যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পান সুজন।

(ঊষার আলো-আরএম)