পড়া না পারায় ৭ বছররে শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টা, শিক্ষক গ্রেপ্তার

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো রিপোর্ট : পড়া না পারার কারনে ৭ বছর বয়সী ১ শিশু ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মাওলানা মোশারফ মল্লিক নামের ১ মাদরাসাশিক্ষককে পুলিশ আটক করেছে। নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর সোনাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।
০১ মার্চ সোমবার দুপুরে কাঁচপুর সোনাপুর এলাকাস্থ ফয়েজীয়া কওমীয়া নুরানী হাফেজীয়া মাদরাসা ও এতিম খানা থেকে আভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করা হয়েছে।
আটককৃত মাওলানা মোশারফ মল্লিক ঝালকাঠি জেলার কাঠালিয়া থানার চেচরি গ্রামে মৃত কালু মল্লিকের ছেলে।
এর আগে ২৮ ফেব্রুয়ারি রবিবার উক্ত মাদরাসায় নিজের কক্ষে মোশারফ মল্লিক ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়েরের পর তাকে আটক করা হয়েছে।
সোনারগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. হাসিব হোসেন বলেন, উপজেলার কাচঁপুর সোনাপুর এলাকায় কুদ্দুস মিয়ার তৃতীয় তলা ভাড়া নিয়ে মাওলানা মোশারফ মল্লিক ও তার স্ত্রী ফয়েজীয়া কওমীয়া নুরানী হাফেজীয়া মাদরাসা ও এতিমখানা গড়ে তোলেন। বিভিন্ন প্রয়োজনে শিক্ষকের স্ত্রী বাইরে গেলে মেয়ে শিক্ষার্থীদের পড়া না পারার কারণে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানি করেন তিনি।
তিনি আরো জানান, মঙ্গলবার দুপুরে তার স্ত্রী জরুরি প্রয়োজনে বাইরে গেলে ভূক্তভোগী শিক্ষার্থীকে পড়া না পারার অজুহাতে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। পরবর্তীতে ওই শিক্ষার্থী বিষয়টি তার পরিবারকে জানালে মাদরাসায় গিয়ে স্থানীয়দের কাছে বিচার দাবি করে তারা। পরবর্তীতে বিষয়টির মীমাংসা না করায় ওই শিক্ষার্থীর মা রবিবার দুপুরে বাদী হয়ে মাওলানা মোশারফ মল্লিককে আসামি করে মামলা করে।
সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

 

(ঊষার আলো-এম.এইচ)