বারাকপুরে বোমা হামলার ঘটনায় থানায় মামলা

সর্বশেষ আপডেটঃ
বারাকপুরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আনছার সমর্থকদের ওপর বোমা হামলার ঘটনায় থানায় মামলা। ঘটনার পর ভোটের দিন ঘটনাস্থলে দিঘলিয়া থানা পুলিশ।

শেখ বদরউদ্দিন : খুলনার দিঘলিয়া উপজেলার বারাকপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আনছার শেখের সমর্থকদের ওপর ভোটের দিনে বোমা, ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলি করার ঘটনায় তার পুত্র তানভির শেখ বাদী হয়ে ৯ জনকে এজাহার নামীয় ও ৮ থেকে ১০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে দিঘলিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছে।

মামলার এজাহার নামীয় আসামিরা হলেন বারাকপুরের আজাদ মোড়ল(৩৮) সোহাগ শেখ(৩৫) হিমেল গাজী(২৮) আলম শেখ(৪০) শাহিদুল মোড়ল(২৫) ইলিয়াজ শেখ(৪২)ফরহাদ গাজী(৪৮) আজিজুল শেখ(৩৬) হিমায়েত বিশ্বাস (৩৬)।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার সময় ৫নং ওয়ার্ডের বারাকপুর উত্তরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আনছার শেখ ভোট প্রদান করতে গেলে নির্বাচন অফিস থেকে কেন্দ্র ঘোরার জন্য অনুমতি নেয়া তার দু’টি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে আসামিরা। এছাড়া বেলা ১২টার সময় বারাকপুর সরদার পাড়া আলিয়া মাদ্রসার সামনে আসামিরা পুর্বপরিকল্পিতভাবে ওৎপেতে থাবা সন্ত্রাসীরা অস্ত্র, বোমা দেশিয় রামদা লোহার রড, চাপাটি, হকিষ্টিকসহ ধারালো অস্ত্রে সজ্জিদ হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আনছার ও তার সমার্থকদের ওপর হামলা করে। এ সময় তারা ৮ থেকে ১০টি বোমা নিক্ষেপ করে বোমার আঘাতে ইমরান শেখ (২৪), আহাদ শেখ (২৬), বাবুল শেখ, কামাল মল্লিক (৩১), মো. আলমগীর (৩৭) সহ ৭ জন আহত হয়। এদের মধ্যে ৫ জনকে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও কামাল, ইমরান ও আহাদ এর শারিরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়।

উল্লেখ্য গত ২০ সেপ্টেম্বর বারাকপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন চলাকালে সকাল থেকে প্রতিপক্ষ প্রার্থী গাজী জাকির হোসেনের সমর্থকরা বিভিন্ন কেন্দ্র দখলে রেখে সাধারণ ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দিচ্ছিল। খবর পেয়ে শেখ আনছার উদ্দিনের সমর্থকরা ঘটনাস্থলে গেলে তাদের ওপর হামলা ও গুলি চালানো হয়।

দিঘলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান উল্লাহ চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে মামলা নং ১৫ তাং ২২/০৯/২১ ইং আসামিদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)