ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফাইনাল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের মাইকিং, ১৫৬ টিম মোতায়েন

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফুটবল ম্যাচ মানেই টানটান উত্তেজনা। ব্রাজিল না আর্জেন্টিনা, আর্জেন্টিনা না ব্রাজিল কোন দল সেরা তা নিয়ে বাংলাদেশি ভক্তদের উত্তেজনার পরিমাণটা যেন আরও বেশি। তবে এবার কেবল তর্ক-বিতর্ক নয়, উত্তেজনা গড়িয়েছে সংঘর্ষেও। এমনকি গত ৪ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রিয় দুই দল নিয়ে এ সংঘর্ষের খবর জায়গা করে নিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতেও।
রবিবার (১১ জুলাই) ভোর ৬টায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কোপা আমেরিকার ফাইনাল ম্যাচ। এই পরিস্থিতিতে চির-প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ফাইনাল এ ম্যাচকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা এড়াতে জেলার প্রতিটি উপজেলায় মাইকিং হয়েছে। উপজেলাগুলোতে মোতায়েন করা হবে ১১৬টি বিট পুলিশের দল। এ ছাড়া ওই দিন ভোররাতে পুলিশের আরও ৪০টি বিশেষ টহল দলও মোতায়েন করা হবে।
এদিকে আজকে সদর মডেল থানার পুলিশ জেলা শহরের ভাদুঘর, কাউতলী, পুনিয়াউট বাসস্ট্যান্ড, পৈরতলা বাসস্ট্যান্ড, মধ্যপাড়া বাসস্ট্যান্ড, পিরবাড়ি-বিরাসার বাসস্ট্যান্ড, ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন, টিএরোড, পৌর মার্কেটের সামনে, সদর হাসপাতাল রোড, কুমারশীল মোড়, পাইকপাড়া, টেংকেরপাড় ও মেড্ডা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মাইকিং করেন এবং ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার খেলাকে কেন্দ্র করে কেউ কোন সহিংসতা জড়িত হলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিবে বলে মাইকিং করা হয়।
সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম জানান, আজ সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শহরের ভাদুঘর থেকে মেড্ডা পর্যন্ত মাইকিং করেছি। সারাদিন মাইকিং চলবে। সবাইকে সতর্কতা লক্ষ্যে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া হবে। উপজেলায় বিট পুলিশের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। খেলাকে কেন্দ্র করে যেন কোন ধরনের সহিংসতা না হয় সেজন্য আগামীকাল ভোর থেকে পুলিশের টহল অব্যাহত থাকবে।
প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের দামচাইল বাজারে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই দিন সকালে প্রথমে কথা-কাটাকাটির জেরে পরে বিকেলে প্রতিপক্ষের হামলায় এক ব্রাজিল সমর্থকের চাচা নওয়াব মিয়া (৬০) আহত হন।
ওই রাতে পাল্টা হামলায় আর্জেন্টিনার তিন সমর্থক জাকির মিয়া (৩২), সেলিম মিয়া (৪৫) ও সৈয়দাবুর রহমান (৩৫) আহত হন। তারা সবাই উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের আলাকপুর গ্রামের বাসিন্দা।
(ঊষার আলো-এমএনএস)