মঠবাড়িয়ায় জামাতার পরকীয়া, স্ত্রীর পর শশুরের আত্মহত্যা, জামাতা গ্রেপ্তার

সর্বশেষ আপডেটঃ

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জামাতার পরকীয়া প্রেমে মেয়ে আত্মহত্যা করার পর বাবাও আত্মহত্যা করেছেন। মেয়ে জান্নাতি আক্তার হেপী (১৯) ও বাবা জাকির হোসেন (৪৮) এর এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটেছে গত রোববার (১৫ আগস্ট) রাতে উপজেলার সাপলেজা ইউনিয়নের ঝাটিবুনিয়া গ্রামে। মৃত জাকির হোসেন ওই গ্রামের আ. মান্নান হোসেনের ছেলে। এ ঘটনায় মৃত জাকির হোসেনের বাবা ও হেপীর দাদা বাদি হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় একটি আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলা দায়ের করেছেন। সোমবার (১৬ আগস্ট) সকালে তাদের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহতের পরিবার ও মামলা সূত্রে জানাগেছে, হেপীর তিন মাস বয়সের সময় বাবা জাকির হোসেন সুপারি গাছ থেকে পরে পঙ্গুত্ব বরণ করেন। এরপর হেপীর মা বিয়ে করে অন্যত্র চলে যান। শিশু সন্তানের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে হেপীর বাবা আর ২য় বিয়ে করেননি। তিনি মেয়েকে লালন পালন করে খেতাছিড়া গ্রামের মৃত ফরিদ উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে ভাগ্নে মামুন হাওলাদারের সাথে বিয়ে দেন। রাইসা আক্তার তাবাসসুম নামে তাদের সাড়ে তিন বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। কিন্তু মামুন সম্প্রতি পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। পরকীয়া বিষয়টি জানাজানি হলে মামুন ও হেপীর মধ্যে দাম্পত্য কলহের সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে হেপী রোববার বিষপান করে আত্মহত্যা করে। হেপীর মৃত্যুর দুই ঘন্টার পর বাবা জাকির হোসেনও বিষপান করে আত্মহত্যা করেন। এদিকে মেয়ে ও বাবার বিষপানে আত্মহত্যার ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল জানান, লাশ ময়না তদন্তের জন্য সোমবার পিরোজপুর জেলা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় একটি আত্মহত্যা প্ররোচনা ও একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। আত্মহত্যার প্ররোচনা মামলায় হেপীর স্বামী মামুনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)