মহানবী (স.)-এর ব্যঙ্গচিত্র আঁকা কার্টুনিস্ট সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.)- এর ব্যঙ্গচিত্র আঁকা সুইডিশ কার্টুনিস্ট লার্স ভিল্কস সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে আজ সোমবার (৪ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, লার্স ভিল্কস সুইডেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় মার্কারিড শহরের কাছাকাছি স্থানে একটি পুলিশের গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন। এমন সময় একটি ট্রাকের সাথে গাড়িটির সংঘর্ষ হয়। এতে কার্টুনিস্ট ভিল্কস ও দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত এবং ট্রাকচালকও আহত হন।

৭৫ বছর বয়সী ভিল্কস মহানবী (স.)- এর কার্টুন আঁকার ঘটনায় প্রাণনাশের হুমকিতে পড়ার পর থেকে পুলিশি নিরাপত্তায় বসবাস ও চলাফেরা করতেন।

২০০৭ সালে কার্টুনটি প্রকাশের ঘটনার পর অনেক ধর্মপ্রাণ মুসলমান ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। কারণ তারা মহানবী (স.)- এর চাক্ষুষ উপস্থাপনাকে ইসলামের অবমাননা হিসেবে গণ্য করেন।

ডেনমার্কের একটি সংবাদপত্র মহানবী (স.)- এর কার্টুন প্রকাশের ১ বছর পর লার্স ভিল্কসের কার্টুনটি প্রকাশিত হয়।

এদিকে স্থানীয় সময় গতকাল রোববারের (৩ অক্টোবর) ঘটনায় নিহতদের পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। কিন্তু ভিল্কসের বন্ধু স্থানীয় একটি পত্রিকায় তার মৃত্যুর তথ্য জানান।

পুলিশের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কিভাবে কার্টুনিস্ট ভিল্কসকে বহনকারী গাড়ি ও ট্রাকের সংঘর্ষ হলো তা এখনও স্পষ্ট নয়। কিন্তু পুলিশের প্রাথমিক ধারণা, সংঘর্ষের ঘটনায় অন্য কেউ জড়িত নেই।

ভিল্কস কার্টুনটি প্রকাশের পর তুমুল ক্ষোভ ও সমালোচনার মুখে সুইডেনের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ফ্রেডরিক রেইনফেল্টকে পরিস্থিতি সামাল দিতে ২২টি মুসলিম দেশের রাষ্ট্রদূতের সাথে বৈঠকে বসতে হয়।

সেই বৈঠকের কিছুক্ষণ পরে সশস্ত্র সংগঠন আল-কায়েদা ভিল্কসকে হত্যার জন্য ১ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কারের ঘোষণা দেয়।

কার্টুনিস্ট ভিল্কস ২০১৫ সালে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে বাকস্বাধীনতা নিয়ে এক বিতর্কে অংশ নেন। আর সেখানে বন্দুক হামলা হয়। সে সময় ভিল্কস বলেছিলেন যে, সম্ভবত তিনিই ছিলেন হামলার লক্ষ্য। তবে সেই হামলায় একজন চলচ্চিত্র পরিচালক নিহত হয়েছিলেন।

(ঊষার আলো-এফএসপি)