যশোরে রাজধানী ডেন্টাল কেয়ার সিলগালা, হোমিও হলে আল্টিমেটাম

সর্বশেষ আপডেটঃ

যশোর প্রতিনিধি : যশোরের চুড়ামনকাটি বাজারের অবৈধ রাজধানী ডেন্টাল কেয়ার বন্ধ ঘোষণা করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ। এ সময় ক্ষমা চেয়ে রক্ষা পেয়েছেন ভুয়া চিকিৎসক হাসিবুল ইসলাম। এছাড়া চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের বাদিয়াটোলায় সেবা হোমিও হলের নানা অনিয়ম সংশোধনের জন্য ৭ দিনের আল্টিমেটাম দেয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মীর আবু মাউদের নেতৃত্বে ওই দুই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালানো হয়।
ডা. মীর আবু মাউদ জানান, অবৈধভাবে রাজধানী ডেন্টাল খুলে চিকিৎসাসেবায় ছিলেন ভুয়া চিকিৎসক কে এম হাসিবুল ইসলাম। তিনি নামের আগে ডা. ও পরে এলডিডিএস (ঢাকা) ডিগ্রি ব্যবহার করছিলেন। বছরের পর বছর ডাক্তার পরিচয়ে রোগীদের সাথে প্রতারণা করে আসছিলেন তিনি। এলডিডিএস কোনও ডাক্তারী ডিগ্রি না। তিনি মানুষের সাথে প্রতারণার জন্য ভুয়া ডিগ্রি লিখেছেন। স্বাস্থ্য বিভাগের টিম অভিযানে গেলে প্রতিষ্ঠান ফেলে দৌঁড়ে পালাচ্ছিলেন হাসিবুল ইসলাম।
এ সময় টিমের সদস্যরা তাকে ধরে আনেন। তিনি বৈধ কোন কাগজপত্র না দেখাতে পারায় রাজধানী ডেন্টাল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। নিজের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাওয়ার কারণে হাসিবুলের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। বাদিয়াটোলার সেবা হোমিও হলে হোমিওপ্যাথের পাশাপাশি ইউনানী ও আয়ুর্বেদিক চিকিৎসাসেবা প্রদান করছিলেন জাহিদুল ইসলাম। এছাড়া তিনি আকু পাংচার ও এনালাইজার মেশিনে পরীক্ষা নিরীক্ষার নামে মানুষকে বোকা বানিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিলেন। জাহিদুল ইসলামের গোডাউনে দেশ বিদেশের নানা রকমের ওষুধ ছড়ানো ছিটানো রয়েছে। এছাড়া কথিত চিকিৎসকের জাহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। এসব সংশোধনের জন্য ৭ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়েছে।
অন্যথায় তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অভিযানের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ( রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. জি এম শাফাত আল দ্বীন ও স্যানেটারি কর্মকর্তা পার্থ প্রতীম লাহিড়ী। সাজিয়ালী ফাঁড়ি পুলিশের সদস্যরা সহযোগিতা করেন।

(ঊষার আলো-এমএনএস)