রূপসার শিয়ালীর ঘটনায় প্রকৃত দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে : খুলনা ইসলামী আন্দোলন

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : রূপসা উপজেলার শিয়ালি গ্রামের শনিবার (৭ আগষ্ট) বিকেলে ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার (১১ আগষ্ট) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগরীর পক্ষ হতে গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠানো হয়।
বিবৃতিতে রূপসায় মসজিদ ও মন্দিরে হামলা দোকানপাট ভাংচুর, ইমাম সাহেবকে মারধর করার মত এমন ন্যক্কারজনক ঘটনায় সঠিক তদন্ত পূর্বক প্রকৃত দোষীদেরকেই শাস্তির দাবী জানানো হয়। সেই সাথে কোন নিরীহ মানুষকে যাতে হয়রানীর স্বীকার হতে না হয়, সেদিকে প্রশাসনকে লক্ষ্য রাখার আহবান জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে তারা আরো উল্লেখ করেন পূর্ব এরকম ঘটনা ঘটেছে যা পরবর্তীতে দেখা গেছে নিজেরাই এই ঘটনার সাথে জড়িত ছিল, সেজন্য এই ঘটনাটি অন্যদিকে জাতীয় প্রবাহিত না হয় এজন্য প্রকৃতভাবে যারা এর সাথে জড়িত তাদেরকে রাষ্ট্রীয় আইনে গ্রেফতার করে শাস্তি দিতে হবে। আমরা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টকারীদের চিহ্নিত করে শাস্তির আওতায় আনতে হবে, আমরা সম্প্রীতিতে বিশ্বাস করি কোনো সংঘাত নয়।

বিবৃতিদাতারা হলেন নগর সভাপতি মুফতি আমানুল্লাহ, নগর সহ সভাপতি মাওঃ মোজাফ্ফার হোসাইন, মুফতী মাহবুবুর রহমান, সেক্রেটারী শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, জয়েন্ট সেক্রেটারী মাওঃ ইমরান হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওঃ দ্বীন ইসলাম, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম, প্রচার ও দাওয়াহ্ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল নোমান, মোঃ ফেরদাউস গাজী সুমন, মাওলানা আব্বাস আমিন, মোঃ মঈন উদ্দিন ভূইয়া, আলহাজ্ব মোঃ মোমিনুল ইসলাম, মোল্লা রবিউল ইসলাম তুষার, মুফতী শেখ আমীরুল ইসলাম, আলহাজ্ব মোঃ জাহিদুল ইসলাম, মাওঃ শায়খুল ইসলাম বিন হাসান, এ্যাডভোকেট মোঃ কামাল হোসেন, আলহাজ্ব মোঃ আমজাদ হোসেন, আলহাজ্ব হাফেজ আব্দুল লতিফ, আলহাজ্ব আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা জিএম কিবরিয়া, আলহাজ্ব সরোয়ার হোসেন বন্দ, আলহাজ্ব আব্দুস সালাম, নির্বাহী সদস্য শেখ হাসান ওবায়দুল করীম, মাওঃ হাফিজুর রহমান।

(ঊষার আলো-এমএনএস)