শিয়ালীর ঘটনায় খুলনা জেলা যুব মৈত্রীর নেতৃবৃন্দের উদ্বেগ প্রকাশ

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : খুলনা জেলার রূপসা উপজেলায় শিয়ালী গ্রামে সম্প্রাদায়িক সম্প্রতি বিনষ্টের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ এবং তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ যুব মৈত্রী, খুলনা জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ সোমবার (৯ আগস্ট) বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ শনিবার (৬ আগস্ট) প্রকাশ্য দিবালোকে রূপসার শিয়ালী গ্রামে একশ্রেণির স্বার্থান্বেষী সাম্প্রদায়িকগোষ্ঠী সনাতন ধর্মালবম্বী সম্প্রদায়ের মন্দির, প্রতিমা, বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট, মারপিট, হুমকি, ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যে তাণ্ডব চালিয়ে সম্প্রীতি বিনষ্ট করেছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং এ জঘণ্য অপরাধের সাথে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

বিবৃতি প্রদান করেছেন বাংলাদেশ যুব মৈত্রী, খুলনা জেলা শাখার সভাপতি প্রভাষক রেজওয়ান রাজা, সাধারণ সম্পাদক এড. কামরুল হোসেন জোয়াদ্দার, সহ-সভাপতি নারায়ণ সাহা, অজয় কুমার দে, প্রভাষক গৌতম কুণ্ডু, প্রভাষক জাহাঙ্গীর আলম, প্রভাষক কামনাশিস সরদার, আব্দুল হান্নান, সহ-সাধারণ সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন, নিশিত কবিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল বাশার, অর্থ সম্পাদক কৃষ্ণ কান্তি ঘোষ, দপ্তর সম্পাদক শেখ এনামুল কবীর লাভলু, প্রচার-প্রকাশনা সম্পাদক শাহাবুদ্দিন বিশ্বাস, গবেষণা ও প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক মফিজুল ইসলাম, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রভাষক মোঃ ইউনুছ আলী, নারী বিষয়ক সম্পাদক মহুয়া বিশ্বাস, স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মিলন কান্তি বালা, আইন বিষয়ক সম্পাদক মৃত্যুঞ্জয় সরদার, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মঈন উদ্দিন ময়না, নির্বাহী সদস্য কামাল হোসেন গাজী, শম্ভু মণ্ডল, মাস্টার বিকাশ চন্দ্র গোলদার, অমৃত, প্রভাত দাস, শফিউল আজম, সাগর গোলদার, আলমগীর হোসেন, অরূপ কুমার নাগ, প্রভাত বিশ্বাস প্রমুখ।

(ঊষার আলো-এমএনএস)