শিয়ালী গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত স্থান পরিদর্শনে বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার ঘাটভোগ ইউনিয়নের শিয়ালী গ্রামে শনিবার (৭ আগস্ট) আনুমানিক বিকেল সাড়ে ৫টায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির, মন্দিরের বিগ্রহ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, সমাধি, বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটতরাজ ঘটে। বাম গণতান্ত্রিক জোট, খুলনা জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ সোমবার (৯ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সাথে কথা বলেন।

নেতৃবৃন্দ সেখানে পৌঁছালে এলাকার ভুক্তভুগীরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন ও আহাজারি করে বলেন, পার্শ্ববর্তী কয়েকটি গ্রাম হতে চিহ্নিত একদল উগ্র সাম্প্রদায়িকগোষ্ঠী সশস্ত্র অবস্থায় সুপরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালায়। এ সময়ে পুলিশ ফাড়ির শরণাপন্ন হলে তারা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে নিষ্ক্রিয় থাকে। বর্তমানে এলাকার মানুষ ভীত-সন্ত্রস্ত অবস্থায় রয়েছেন। নেতৃবৃন্দ এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের পাশে থেকে তাঁদের সাহায্য সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

নেতৃবৃন্দ এ জঘণ্য ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অনতিবিলম্বে প্রকৃত দোষীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, দ্রুত মন্দিরগুলো পুনঃ সংস্কার, ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী ও পরিবারগুলোর পুনর্বাসন এবং ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় স্বাভাবিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।

এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন বাম গণতান্ত্রিক জোট ও গণসংহতি আন্দোলন, খুলনা জেলা সমন্বয়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলÑবাসদ, খুলনা জেলা সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নাণ্টু, বাংলাদেশের ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ, খুলনা জেলা সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য মোস্তফা খালিদ খসরু, সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু, বাসদ খুলনা জেলা সদস্য আব্দুল করিম, রূপসা উপজেলা সিপিবি সভাপতি মুরারী সরকার, সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হালিম, রূপসা উপজেলা ইউসিএলবি সাধারণ সম্পাদক হৃদয় কীর্ত্তুনীয়া, উপজেলা নেতা নিতাই বিশ্বাস, চিত্ত বিশ্বাস, উদীচী জেলা সহ-সভাপতি আকবর হোসেন, শিয়ালী শাখার সভাপতি অধ্যাপক পূর্ণেন্দু মণ্ডল প্রমুখ।

(ঊষার আলো-এমএনএস)