বাগেরহাটে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশে নেতারা

সরকার বিএনপির প্রতি ভীত হয়ে জিয়াউর রহমানের নাম মুছে দিতে চাইছে

সর্বশেষ আপডেটঃ

আরিফুর রহমান, বাগেরহাট : বাগেরহাটে ব্যাপক শো-ডাউনের মধ্যদিয়ে বিএনপির ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে। শহরের সরুই এলাকায় জেলা বিএনপির সাবেক কার্য্যালয় চত্বরে বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় প্রতিষ্টা বার্ষিকীর সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ সালাম। প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির নির্বাহি সদস্য অ্যাডভোকেট শেখ ওহিদুজ্জামান দিপু।

পৌর বিএনপির সভাপতি শেখ শাহেদ আলী রবির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা হাদিউজ্জামান হিরো, মহিলা দল নেত্রী শাহিদা আক্তার, শহীদুল ইসলাম স্বপন, ওবায়দুল জুয়েল আব্দুস সালাম, সাইফুল ইসলাম, এসএম সাজ্জাদ হোসাইন, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নুরে আলম ভুইয়া তানু, শ্রমিক দল নেতা তাপস কুমার রায়, ছাত্রদল সভাপতি ইমরান খান সবুজ সাধারন সম্পাদক আলী দ্বীপ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, জনগণের ভোটাধিকার খর্ব করে জোরপূর্বক সরকার ক্ষমতায় গিয়ে ক্ষমতার মোহে যা খুশি তাই করছে। ইতিহাস স্বীকৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নাম মুক্তিযোদ্ধা থেকে মুছে ফেলার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। দেশ পরিচালনার নামে সারাদেশে অনিয়ম দুর্নীতির দূর্গ গড়ে তুলে জনগণের অর্থ লুটপাট করছে। বিদেশে পাচার করছে। নেতারা এ সমাবেশে হুসিয়ারি উচ্চারন করে বলেন ক্ষমতায় কেউ সারাজীবন থাকতে পারে না। আওয়ামী লীগের সময় হয়েছে। ভোট নয় জনগণ ঐক্যবদ্ধ হয়ে অচিরেই এ সরকারকে হটাবে। দেশে আবারও গণতন্ত্র আসবে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সভায় জেলার সকল উপজেলা থেকে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের সহাস্রাধিক নেতা-কর্মী উপস্থিত হন। সভা শেষে বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল করা হয়।

(ঊষার আলো-এমএনএস)