সাংবাদিক ও অভিনেতা কাফি খানের ইন্তেকাল

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের এক সময়ের সংবাদ পাঠক ও অভিনেতা এবং বাচিক শিল্পী কাফি খানের মৃত্যু হয়েছে (ইন্না লিল্লাহি……রাজিউন)। যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার আর্লিংটনে ভার্জিনিয়া সেন্টার হাসপাতালে বৃহস্পতিবার বিকেলে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বলে জানিয়েছেন তার পুত্র রাফি খান। তিনি দীর্ঘদিন প্রোস্টেট ক্যান্সারে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর। ২ ছেলে এবং ২মেয়ের জনক কাফি খান ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগ থেকে অবসর নেন ১৯৯৪ সালে। যুক্তরাষ্ট্রেই পরিবার এবং স্বজনদের সান্নিধ্যে অবসর জীবন কাটাচ্ছিলেন।
ব্রিটিশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশপরগনা জেলার বারাসাত এলাকার কাজীপাড়া গ্রামে কাফি খানের জন্ম। তার জন্ম সাল ১৯২৯ সালের ১ মে। ১৯৬৬ সালে কাফি খান প্রথমবার ভয়েস অব অ্যামেরিকার বাংলা বিভাগের কর্মী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন।

একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় ওয়াশিংটন ডিসিতে কর্মরত ছিলেন তিনি। তৎকালীন কিছু প্রবাসীর সাথে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রে জনমত গঠনে কাজ করেন তিনি। ১৯৭৫ ৭ই নভেম্বরের পর জিয়াউর রহমান প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিলে কাফি খানকে তার প্রেস সচিব হিসেবে কাজ করার আমন্ত্রণ জানান। কাফি খান ওই প্রস্তাব গ্রহণ করেন। তারপর ১৯৮২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ভয়েস অব আমেরিকার চাকরি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী হন কাফি খান। মঞ্চনাটক, কবিতা আবৃত্তি এবং বেতার অনুষ্ঠান ছাড়াও, ষাটের দশকে ঢাকায় বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করেন ।

(ঊষার আলো-আরএম)