সাতক্ষীরায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : মেহেদীর রঙ না উঠতেই ঝরে গেল এক গৃহবধূর জীবন। বিয়ের মাত্র ৭ দিনের মাথায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন আঞ্জুমান আরা (১৮) নামের এক গৃহবধূ। এই ঘটনাটি ঘটে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামে।

নিহত গৃহবধূ বসন্তপুর গ্রামে আব্দুল খালেকের নাতনী।

নিহতের নানী ছকিনা খাতুন বলেন, আঞ্জুমানের বাবা আনারুল সরদারের বাড়ি শ্যামনগর উপজেলার কৈখালী গ্রামে। সে বসন্তপুরে তার নানার  বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করতো। কালিগঞ্জ সরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় গত সোমবার পারিবারিকভাবে ওই এলাকার বাবর আলী ওরফে বাবু মোড়লের ছেলে সাইদুল ইসলামের (২৮) সাথে আঞ্জুমান আরার বিয়ে হয়। গতকার রবিবার সকালে আঞ্জুমানের স্বামী রাজমিস্ত্রীর সহযোগী সাইদুল কাজের জন্য বাইরে চলে যান।

এ সময় ঘরের আড়ার সঙ্গে ওড়নার সাহায্যে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন আঞ্জুমান আরা। সকাল ১০টার দিকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন আঞ্জুমানকে আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। তার নাতনী মানসিক সমস্যায় ভুগছিল বলে জানান নানী ছকিনা খাতুন।

কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা বলেন, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। আর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

(ঊষার আলো-এফএসপি)