সাতার কেটে পড়তে হয় নামাজ

সর্বশেষ আপডেটঃ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ায় মূল ভূখণ্ড থেকে অনেকটা দূরে চলে গেছে মসজিদ। প্রায় অর্ধেকই ডুবে আছে পানিতে। যে কোনও সময় ভেঙে পড়ে তলিয়ে যেতে পারে নদীতে। তবু মসজিদটির ইমাম প্রতিদিনই সাঁতার কেটে ডুবন্ত ওই মসজিদেই আজান দেন। সেখানে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ একাই আদায় করেন তিনি। এমনকি মসজিদটির ছাদেই রাতে ঘুমান।

ঘটনাটি সাতক্ষীরা জেলার প্রতাপনগর ইউনিয়নের। ফেসবুকে এ নিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে দেখা যায়, দূর থেকে সাঁতার কেটে মসজিদ থেকে ফিরছেন ইমাম।

তিনি বলেন, সম্প্রতি নদী ভাঙন এবং পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় মসজিদটি নদীর অনেকটাই ভেতরে চলে গেছে। মুসল্লিরা এখন আর সেখানে যেতে পারেন না। তবে আমি প্রতিদিনই এখানে আজান দিই। রাতে ঘুমাই মসজিদেই।

ভিডিওতে ওই ব্যক্তি আরও জানান, এরই মধ্যে তার নিজ বসতভিটাও চলে গেছে পানির নিচে। তাই পরিবার নিয়ে অন্য স্থানে বসবাস শুরু করেছেন। তবে এই মসজিদটিকে কখনও পরিত্যাক্তভাবে পড়ে থাকতে দেন না তিনি।

(ঊষার আলো-এমএনএস)