স্পীডবোট দুর্ঘটনা

স্পীডবোট চালককে কারাগারে প্রেরণ

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : মাদারীপুরের শিবচরে পদ্মায় স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জনের নিহতের ঘটনার মামলার প্রধান আসামি স্পীডবোট চালক শাহআলমকে সোমবার (১৭ মে) দুপুর ২টার দিকে মাদারীপুর আদালতে হাজির করেছে নৌ-পুলিশ। পরে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচারক মো: সাইদুর রহমানের আদালতে তাকে হাজির করা হলে এসময়ে আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ প্রদান করেন।
উল্লেখ্য, লকডাউনের মধ্যে গত ৩ মে সকালে সরকারি নিষেধ না মেনে ৩১ জন যাত্রী নিয়ে স্পীডবোটি মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট থেকে মাদারীপুরের বাংলাবাজারের উদ্দেশ্যে ছেরে আসলে পথেমধ্যে সকাল ৭টার দিকে মাদারীপুরের পুরাতন কাঠালবাড়ি ঘাটে নোঙ্গর করে থাকা বালু ভর্তি বাল্কহেডের সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে ৩১ জন যাত্রীর মধ্যে ২৬ জনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এবং গুরুতর আহত হয় স্পীডবোট চালকসহ ৫ জন।
সে সময় স্পীডবোট চালক শাহআলমকে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হলে সেখানে তার অবস্থা অবনতি হলে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজে নেয়া হলে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসক জন্য প্রেরণ করা হয়।
এদিকে এই দুর্ঘটনায় ৩ মে রাতে মাদারীপুরের শিবচর থানায় মামলা দায়ের করে নৌপুলিশ। মামলায় প্রধান আসামী করে স্পীডবোট চালক শাহআলমসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে। রবিবার রাত ৮ টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তাকে গ্রেফতার করে নৌপুলিশ পরে তাকে শিবচর থানায় হস্তান্তর করা হয়।
এর আগে শিবচর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ স্পীডবোর্ড চালক শাহ-আলমের ডোপ টেস্ট করে সেখানে তার মাদকাসক্তের আলামত পাওয়া যায়। তাই এই দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে করে জেলা প্রশাসনের ৬ সদস্য নিয়ে গঠিত তদন্ত কমিটি স্পীডবোটি চালানোর সময় চালক শাহআলম নেশাগ্রস্ত ছিল বলে তদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

(ঊষার আলো-এমএনএস)