২৪ ঘণ্টায় খুলনার ৩ হাসপাতালে ১৫ জনের মৃত্যু

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো রিপোর্ট : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গে নিয়ে খুলনার ৩টি করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। ৩ জুলাই শনিবার সকাল ৮ টা থেকে আজ ৪ জুলাই রবিবার সকাল ৮ টা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে।
মারা যাওয়া ১৫ জনের মধ্যে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে ৭ জন, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২ ও বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।
করোনা হাসপাতালের ফোকালপারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার বলেছেন, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তিরা হলেন- খানজাহান আলী রোডের শেখ ওহিদুজ্জামান (৬৮), দোলখোলা এলাকার আনোয়ারা (৬২), দৌলতপুরের বেগম (৫০), খুলনা সদরের সরদার হায়বাদ আলী (৫৫), বাগেরহাটের ফুনিয়াবাই এলাকার জাহাঙ্গীর (৫২) ও বাগেরহাটের ডাকবাংলো এলাকার ইলিয়াস ফকির (৬০) ও হাসপাতালের ইয়েলো জোনে উপসর্গ নিয়ে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন আছে ১৯৭ জন। যারমধ্যে রেড জোনে ১০২ জন, ইয়ালো জোনে ৪১ জন, আইসিইউতে ২০ জন ও এইচডিসিতে ২০ জন রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছে ৩৮ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৫০ জন।
বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের স্বত্ত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান বলেছেন, তার হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২৪ ঘণ্টায় ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হল- খুলনার বানিয়াখামার আফতাব হোসেন (৭৬), ডুমুরিয়ার জাকির হোসেন (৫০) ওসালেহা বেগম (৬৭), বাগেরহাটের কাজী আহাদ (২৬), নড়াইলের হালিমা (৫৫) ও মিন্টু বিশ্বাস (৮১)। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছে আরও ১১৫ জন, এরমধ্যে এইচডিইউতে ৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছে ২৩ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ২২ জন।
জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ বলেন, খুলনার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে টুটপাড়ার জহুরুল হক (৬৫) ও ডুমুরিয়ার জাহানারা বেগম (৬০) নামের ২ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন আছে ৬৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছে ১৫ জন, আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১৮ জন।
শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে ফোকালপারসন ডা. প্রকাশ দেবনাথ বলেছেন, করোনা ইউনিট খোলার প্রথম ২৪ ঘণ্টায় ২৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছে, তবে কেউ মারা যাননি।

(ঊষার আলো- এম.এইচ)