৪০৮ টাকার ইনজেকশনের দাম ৯৭৫ টাকা

সর্বশেষ আপডেটঃ

যশোর প্রতিনিধি : জেলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের সামনের এক ফার্মেসীর বিরুদ্ধে রোগীর স্বজনের সাথে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। ৪০৮ টাকার ভ্যাকসিটেট আইজি ইনজেকশন দিয়ে হাতিয়ে নেয়া হয়েছে ৯৭৫ টাকা ।
ফার্মেসী মালিক দাবি করেছেন, তড়িঘড়ি করে ওষুধ দেয়ার কারণে এ ধরণের ভুল হয়েছে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) দুপুরে ট্রাকের টায়ার খোলার সময় হ্যান্ডেল সরে গেলে আহত হন হেলপার ইমরান হোসেন (১৭)। সে মাদারীপুরের ডাসার উপজেলার মেলকাই গ্রামের মোতালেব হাওলাদারের ছেলে। তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।
রোগীর মামা ও ট্রাকের চালক খলিলুর রহমান খলিল জানান, ওয়ার্ড থেকে ওষুধ কেনার জন্য সেবিকারা স্লিপ দেন। সেটি নিয়ে যান নতুনহাট ফার্মেসীতে। এসময় তাকে ৫ প্রকারের ওষুধ নিয়ে দাম নেয়া হয় ১১৮৫ টাকা। এরমধ্যে প্রোটেক্ট আই জি ইনজেকশনের দাম ধরা হয় ৯৭৫ টাকা।
খলিল আরও জানান, ওষুধগুলো নিয়ে সেবিকার কাছে দেয়ার পর জানানো হয় প্রোটেক্ট ইনজেকশনের পরিবর্তে দেয়া হয়েছে ভ্যাকসিটেট ইনজেকশন। যার দাম হলো ৪০৮ টাকা। কিন্তু প্রোটেক্ট আইজি ইনজেকশন ৯৭৫ টাকা।
নতুনহাট ফার্মেসীর প্রতারণার কারণে তিনি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। এই বিষয়ে কথা হলে নতুনহাট ফার্মেসীর মালিক জানান, তড়িঘড়ি করে ওষুধ দেয়ার কারণে ভুল হয়েছে। ওই রোগীর স্বজন আসলে ইনজেকশনটি পাল্টে দেয়া হয়।

(ঊষার আলো-এমএনএস)