তিন শর্তে ১ নভেম্বর থেকে সুন্দরবন ভ্রমণ

298
0
ছবি: সুন্দরবন হাড়বাড়িয়া ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র। গত ২৬ ফেব্রুয়ারী ছবিটি তোলা-ঊষার আলো

বিশেষ প্রতিনিধি : নানা আলোচনার পর আগামী ১ নভেম্বর থেকে শর্ত সাপেক্ষে সুন্দরবন পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাত ৮টায় পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এই তথ্য জানিয়েছেন। আজ-কালকের মধ্যে বনবিভাগ এ সংক্রান্ত পরিপত্র জারি করবে।

বন উপমন্ত্রী জানান, নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হলেও পর্যটক কিছুটা নিয়ন্ত্রণ করা হবে। একসঙ্গে এক জাহাজে ৫০ জনের বেশি পর্যটক সুন্দরবনে প্রবেশ করতে পারবে না। শুধু লঞ্চে থেকেই বন উপভোগ করতে হবে বনের ভেতরে নামা যাবে না। সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।



বনবিভাগ থেকে জানা গেছে, দেশী-বিদেশী পর্যটকদের অন্যতম আকর্ষণ সুন্দরবন। প্রতি বছর গড়ে প্রায় দেড় লাখ পর্যটক সুন্দরবন ভ্রমণ করে থাকে। সর্বশেষ ২০১৯-২০ অর্থ বছরে সুন্দরবন ভ্রমণ করেন ১ লাখ ৭২ হাজার ৯৭৯ জন পর্যটক। এর মধ্যে দেশী পর্যটক ছিল ১ লাখ ৭০ হাজার ৬৬২ জন এবং বিদেশী পর্যটক ছিল ২ হাজার ৩১৭ জন। এ থেকে বন বিভাগের রাজস্ব আয় হয়েছিল ১ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।



ছবি: সুন্দরবন হাড়বাড়িয়া ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র। গত ২৬ ফেব্রুয়ারী ছবিটি তোলা-ঊষার আলো

করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে চলতি বছরের ১৯ মার্চ থেকে সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশ নিষিদ্ধ করে বনবিভাগ। বিভিন্ন সময় এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করেছে ট্যুর অপারেটর কোম্পানিগুলো। কিন্তু সুন্দরবনে প্রবেশ বন্ধের ব্যাপারে অনড় ছিলো বনবিভাগ। বর্তমানে পর্যটক ব্যবসায়ীদের তৎপরতায় পিছু হটেছে মন্ত্রণালয়।
খুলনা সার্কেলের বন সংরক্ষক মোঃ মঈনুদ্দিন খান ও সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা বর্তমানে সুন্দরবনের ভেতরে রয়েছেন। তাদের মোবাইল বন্ধ রয়েছে।