শিশুদের বিড়ির আগুনে পুড়ে ছাই বসতঘর

সর্বশেষ আপডেটঃ
51
0

ঊষার আলো রিপোর্ট : গুড়ার ধুনট উপজেলায় ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নে যমুনা নদীর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রিত বাস্তুহারা একটি পরিবারের একমাত্র বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মাথা গোঁজার ঠাঁই হারিয়েছে পরিবারের লোকজন খোলা আকাশের নীচে মানবেতর জীবনযাপন করছে।
আজ শনিবার সকালের দিকে উপজেলার ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুল করিম আপেল এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হাই খোকন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিয়েছে। পরিবারটির জন্য সরকারিভাবে আরো অনুদানের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভুতবাড়ি বাঁধে আশ্রিত আফজাল হোসেনের পরিবারের লোকজন শুক্রবার দুপুরের পর যমুনা নদীতে গোসল করতে যান। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন শিশু ঘরের ভেতর ঢুকে লুকিয়ে বিড়ি খেয়ে আগুন ফেলে রেখে চলে যায়। তখন বিড়ির আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত ঘটেছে। মুহূর্তের মধ্যে বসতঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।
ধুনট ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ইনচার্জ শামীম রেজা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছেন। বিড়ির আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে।

 

(ঊষার আলো-এম.এইচ)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ