বার্ন ইনস্টিটিউটে নিজের শরীরে আগুন দেওয়া কর্মচারী মিলনের মৃত্যু

সর্বশেষ আপডেটঃ
46
0

ঊষার আলো রিপোর্ট : শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের রিসিপশনে ১ বছর ধরে কাজ করছিলেন মিলন। তিনি শারীরিক প্রতিবন্ধী ছিলেন। অনেক ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। এদিকে কর্মস্থলে তার গত কয়েক মাসের বেতনও বকেয়া রয়েছে।
গতকাল শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে ইনস্টিটিউটের নিচতলার বাথরুমে গিয়ে নিজের শরীরে আগুন দেন মিলন। দগ্ধ অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আজ ২০ মার্চ শনিবার সকালে তার মৃত্যু হয়েছে ২৭ বছর বয়সী এই কর্মচারীর।
মিলনের বাড়ি রাজশাহী জেলায়। তাঁর পিতার নাম ইউসুফ। বার্ন ইনস্টিটিউট সূত্র জানা গেছে, গত ১ বছর ধরে বার্ন ইনস্টিটিউটের রিসেপশনে কাজ করছে মিলন। শারীরিক প্রতিবন্ধী থাকায় চলাফেরা করতেন হুইল চেয়ারে। ১৯ মার্চ শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে হুইল চেয়ার নিয়ে বাথরুমে যান তিনি। পরে বাথরুম থেকে তাঁকে দগ্ধ অবস্থায় দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।
সূত্র আরো জানা যায়, মিলন অনেক ঋণগ্রস্ত ছিলেন। এদিকে কর্মস্থলে তাঁর গত কয়েক মাসের বেতনও বকেয়া ছিল। তাই এসব ঘটনার মানসিক যন্ত্রণা থেকে পরিত্রাণ পেতে শুক্রবার দিবাগত রাতে বাথরুমে গিয়ে নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।
শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সহকারী পরিচালক ডা. হুসাইন ইমাম ইমু বলেছেন, আমরা জানতে পেরেছি মিলন নিজের গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, বেতন-ভাতার দাবিতে মিলন নিজের গায়ে আগুন লাগিয়েছেন কি-না সে বিষয় আমার জানা নেই। ঘটনাটি শাহবাগ থানার পুলিশকে জানানো হয়েছে। এ বিষয়ে পুলিশ ব্যবস্থা নিচ্ছে।

 

(ঊষার আলো-এম.এইচ)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ