জলবায়ুযুদ্ধে ঐক্যের ডাক দিয়েছে শেখ হাসিনা

সর্বশেষ আপডেটঃ
29
0

ঊষার আলো রিপোর্ট : জলবায়ুযুদ্ধে ঐক্যের ডাক দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। ডিপ্লেম্যাট ম্যাগাজিনের এপ্রিল সংখ্যায় প্রকাশিত নিবন্ধে তিনি লেখেন, ঐক্যবদ্ধ না হলে জলবায়ুযুদ্ধে পরাজয় সুনিশ্চিত। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ঝুঁকিতে থাকা ৪৮ উন্নয়নশীল দেশের জোট কাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) নেতা শেখ হাসিনা। তিনি পৃথিবীকে বাঁচাতে এ বছরের শেষ দিকে গাসগোতে অনুষ্ঠেয় ২৬তম বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন (কপ২৬) বসার আগে উন্নত দেশগুলোর প থেকে কার্বন নিঃসরণ কমানোর উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা প্রত্যাশা করেছেন। ওই জলবায়ু সম্মেলনকে অর্থবহ করতে সিভিএফ-কপ২৬ ঐক্যেরও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, কপ ২৬ সম্মেলনের আগে আগামী ২২ এবং ২৩ এপ্রিল ১টি জলবায়ু সম্মেলনের ডাক দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। সম্মেলনে শেখ হাসিনাসহ ৪০ জন বিশ্বনেতাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ পৌঁছে দিতে আগামী ৯ এপ্রিল কয়েক ঘণ্টার সফরে ঢাকায় আসছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের জলবায়ুবিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরি।

ডিপোম্যাট ম্যাগাজিনে শেখ হাসিনা লিখেছেন, ‘প্রকৃতির রুদ্ররোষের বিরুদ্ধে এ যুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ না হলে আমাদের পরাজয় সুনিশ্চিত। যে প্রকৃতি আমাদের বাঁচিয়ে রেখেছে খুব সচেতনভাবে আমরা তাকে ধ্বংস করে চলেছি।

তিনি আরও লিখেছেন, ‘গ্রেটা থুনবার্গ অথবা বাংলাদেশের কোস্টাল ইয়ুথ অ্যাকশন হাবের তরুণ পরিবেশকর্মীদের আমরা কোন পৃথিবী রেখে যাব? কপ২৬-এ তাদের ভবিষ্যৎ আমরা জলাঞ্জলি দিতে পারি না।
প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, বাংলাদেশকে বলা হয় প্রাকৃতিক দুর্যোগের ‘গ্রাউন্ড জিরো’। জলবায়ু পরিবর্তন এ দেশের বহু মানুষের জন্য অস্তিত্বের সংকট।

প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, এরই মধ্যে ৬০ লাখ বাংলাদেশি জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাস্তহারা হয়েছে। এরপরও আমরা ১ কোটি ১০ লাখ রোহিঙ্গার ভার বহন করে চলেছি। সে জন্য আমাদের পরিবেশগত মূল্যও দিতে হচ্ছে। এর তিপূরণ আমাদের কে দেবে?
সিভিএফের সদস্যদের জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হওয়ার বড় ঝুঁকি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনে এদের ভূমিকা সবচেয়ে কম। জলবায়ু অবিচার বন্ধের জন্য উদ্যোগী হওয়ার সময় এখন।

করোনা মহামারির কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা লিখেছেন, এ মহামারির কারণে জলবায়ু, স্বাস্থ্য এবং প্রকৃতি ত্রিমুখী সংকটে পড়েছে। ‘সিভিএফ-কপ২৬ শক্তিশালী ঐক্য গড়ে তোলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আগামী নভেম্বর মাসে জলবায়ু সম্মেলনে ঢাকা-গাসগো-সিভিএফ-কপ২৬ ঐক্যের ঘোষণা চাই। সম্মেলনের আগে উন্নত দেশগুলোর কাছ থেকে কার্বন নিঃসরণ কমানোর রূপরেখার পাশাপাশি জলবায়ু তহবিলের প্রতিশ্রæত অর্থ ছাড় করারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

(ঊষার আলো-আরএম)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ