বাঘায় পদ্মার চরে ইব্রাহীমকে হত্যা করা সেই ধারাল হাসুয়াটি উদ্ধার

সর্বশেষ আপডেটঃ
26
0

ঊষার আলো রিপোর্ট : রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার চরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ইব্রাহীমকে হত্যা করা সেই অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে। মামলার ২ নম্বর আসামি দিলা বেপারিকে আটকের পর তাকে ২ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। রিমান্ডে তার তথ্যের ভিত্তিতে পদ্মার চরের ১ ভুট্টা ক্ষেত থেকে ইব্রাহীমকে পায়ে কোপ দেওয়া সেই ধারাল হাসুয়াটি উদ্ধার করা হয়।
৫ এপ্রিল সোমবার বিকেলে সাড়ে ৫টার দিকে বাঘা থানার পুলিশ হাসুয়াটি উদ্ধার করে।
এ বিষয়ে বাঘা থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল বারী বলেছেন, ৩০ মার্চ রাতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার তেরখাদিয়ার বারোমাইল এলাকা থেকে দিলা ব্যাপারীকে আটক করা হয়। পরের দিন ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়। আদালত তাকে ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
সেই মোতাবেক তাকে ৪ এপ্রিল থানায় আনা হয়। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে ইব্রাহীমকে যে ধারাল হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। সেই হাসুয়াটি চরের একটি ভুট্টা ক্ষেতে রাখা হয়েছে বলে তথ্য দেয়। তার তথ্যমতে সোমবার বিকেলে হাসুয়াটি উদ্ধার করা হয়েছে। দিলা বেপারি পদ্মার মধ্যে চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়া চরের মৃত হায়দার বেপারির ছেলে।
বাঘা থানা সূত্রে জানা যায়, বাঘা উপজেলার পদ্মার মধ্যে চৌমাদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে ২৪ মার্চ রাতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ইব্রাহীম দেওয়ানকে আবদুর রশিদ নিজে গুলি করে হত্যা করেন। পর দিন ২৫ মার্চ ইব্রাহীমের ভাই সোলেমান দেওয়ান বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় মামলা করে। দিলা বেপারী ওই মামলায় দুই নম্বর আসামি।
উল্লেখ্য, গত ২৮ ফেব্রুয়ারি জমির আগাছা পরিষ্কার করা নিয়ে দিলা বেপারি এবং মজনু দর্জির মধ্যে গোলাগুলি ও সংঘর্ষে ১০ জন আহত হন। এই গোলাগুলির ঘটনায়ও চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়া চরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বর আবদুর রহমান বাদী হয়ে ১৭ জনকে আসামি করে একটি মামলা করে।

(ঊষার আলো- এম.এইচ)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ