বাগেরহাটে নির্যাতনে অতিষ্ঠ ত্যাগী আওয়ামী লীগ নেতার সংবাদ সম্মেলন

সর্বশেষ আপডেটঃ
82
0

আরিফুর রহমান, বাগেরহাট : বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের ব্যানারে বিএনপি সন্ত্রাসীদের অত্যাচার নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা মাহাবুব সিকদার সংবাদ সম্মেলন করেছেন। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে বাগেরহাট প্রেসক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলার পুটিখালি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান সিকদার। এসময় নির্যাতনের শিকার অন্য নেতা-কর্মীরা ও উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে মাহাবুব সিকদার বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হয়ে গত ১৯৯৭ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত পুটিখালি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছি। ইউনিয়নবাসীর ভোটে বিগত সময়ে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হয়ে নাগরিক সেবা দিয়েছি। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিএনপি-জামায়াত জোটের স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হাতে আমরা চরমভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছি। অনেকে এলাকা ছেড়ে অন্যত্র গিয়ে আশ্রয় নিয়েছে। অথচ, ২০২১ সালে এসে সেই নির্যাতনকারি পরিবারের অন্যতম সদস্য নব্য আওয়ামী লীগনেতা আব্দুর রাজ্জাককে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য নৌকা প্রতিক দেয়া হয়েছে। এই আব্দুর রাজ্জাকের এক ভাই শাহ আলম সেখ ইউনিয়ন জামাতে ইসলামির সেক্রেটারি, বড় ভাই মোশারেফ শেখ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, অন্যভাই আলী আজিম বাবুল মোড়েলগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সাংগঠিনিক সম্পাদক। এরা কয়ভাই মিলে ২০০১ সালে গোটা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ নিধন কর্মকান্ড চালিয়ে ইউনিয়ন বাসিকে অতিষ্ট করে তুলেছিল। গত ২০২০ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি উপজেলার মংগলেরহাট এলাকায় ওই সন্ত্রাসীরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের চলমান সভাপতি মাওঃ আব্দুল কাদেরসহ বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মীকে বেধড়ক মারপিট করে। এরপর আব্দুর রাজ্জাক শেখ এবারের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে নৌকা প্রতিক দেয়া হয়েছে। এতে ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বেশীরভাগ নেতা-কর্মী ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে এবং আমাকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশ গ্রহনের অনুরোধ করে। বেশীরভাগ নেতা-কর্মীরা বলছেন, আওয়ামী লীগের যারা প্রকৃত নেতা তাদের মনোনয়ন দিলে আমাদের কোন দ্বিমত ছিলনা। যে প্রার্থী ও তার পরিবার আমাদের উপর হামলা করেছে। যাদের অত্যাচারে অনেকে এলাকা ছেড়েছে তারাই আবার নৌকা প্রতিক পেয়েছে। যা সম্পুর্ন আওয়ামী লীগ আদর্শের পরিপন্থি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত অধ্যাপক মঈনুল হক, মনিরুজ্জামান, মিলন সিকদার, ফয়সাল, বাচ্চু ও ইব্রাহিম বলেন, গত ২৮ মার্চ আমরা মাহবুব সিকদারের নির্বাচনি প্রচারে বের হলে আব্দুর রাজ্জাক তার বিএনপি দলীয় কর্মী ও আত্মীয়দের নিয়ে আমাদের উপর হামলা করে। এতে ১০/১২ জন আহত হয়। যে ঘটনায় আমরা মোড়েলগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছি। অপরদিকে আব্দুর রাজ্জাকের পক্ষ থেকেও থানায় একটি মামলা করেছে। এখন আমাদের এলাকা থেকে চলে যেতে নানাভাবে হুমকী ধামকী দিয়ে চলেছে। বাড়ীর নারী ও শিশুরা নিরাপত্তাহীনতায় পড়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের সভাপতি আমাদের অভিভাবক ডাঃ মোজাম্মেল হোসেন মারা যাওয়ার পর আমরা অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছি। এখন মোড়েলগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগের কোন অভিভাবক কে পাই না। তাই উপান্তর না পেয়ে দলীয় প্রধানের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এই সংবাদ সম্মেলন করছি।

(ঊষার আলো-এমএনএস)

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ