বিমানের ককপিটে ভাঙচুর : যাত্রী আটক

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক: গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা হওয়ার আগে ফ্লাইটের ককপিটে ঢুকে ভাঙচুর ও কন্ট্রোল সিস্টেমের ক্ষতি করার অভিযোগে মধ্য আমেরিকার দেশ হন্ডুরাসের বিমানবন্দরে এক যাত্রীকে আটক করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের মিয়ামির উদ্দেশে হন্ডুরাসের বিমানবন্দর থেকে আমেরিকান এয়ারলাইন্সের ওই ফ্লাইটটির উড্ডয়নের কথা ছিল। বুধবার (১২ জানুয়ারি) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

এক বিবৃতিতে আমেরিকান এয়ারলাইন্স জানিয়েছে, মিয়ামির উদ্দেশে যাত্রা শুরুর আগে হন্ডুরাস বিমানবন্দরে এক যাত্রী ফ্লাইটের ককপিটে ঢুকে যায় এবং ভাঙচুর চালায়। এতে ফ্লাইটের কন্ট্রোল সিস্টেম ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসময় ফইইটের ক্রুরা তাকে থামানোর চেষ্টা করেন এবং পরে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ অভিযুক্তকে আটক করে।

অবশ্য তাৎক্ষণিকভাবে ওই যাত্রীর পরিচয় জানা যায়নি বলে আমেরিকান এয়ারলাইন্সের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি

যাত্রীদের বোর্ডিংয়ের সময় অভিযুক্ত যাত্রী বোর্ডিং ব্রিজ দিয়ে দৌড়ে ককপিটে প্রবেশ করার পর সেখানে ভাঙচুর এবং কন্টোল সিস্টেমের ক্ষতিসাধন করেন। পরে তিনি খোলা জানালা দিয়ে ঝাঁপ দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে একজন পাইলট তাকে বাধা দেন।

এদিকে ঘটনাস্থলে থাকা পাইলট ও কেবিন ক্রুরা পেশাদারিত্বের সাথে আকস্মিক এই ঘটনাটি মোকাবিলা করায় বিবৃতিতে তাদের ভূয়সী প্রশংসা করেছে আমেরিকান এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

রয়টার্স বলছে, আমেরিকান এয়ারলাইন্সের ক্ষতিগ্রস্ত ওই এয়ারক্রাফটটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের এবং সেটি ১২১ জন যাত্রী ও ৬ জন ক্রু নিয়ে মিয়ামির উদ্দেশে যাত্রা করার কথা ছিল। ককপিটে ভাঙচুরের পর পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এয়ারক্রাফটটিকে হন্ডুরাসের সান পেন্দ্রো সুলা শহরের র‌্যামন ভিলেদা মোরালেস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে গ্রাউন্ডেড করা হয়।

যাত্রীদেরকে অবশ্য বিকল্প একটি ফ্লাইটে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।