খুমেক চিকিৎসক লাঞ্ছনাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে খুলনা বিএমএ’র আল্টিমেটাম

সর্বশেষ আপডেটঃ
59
0

ঊষার আলো প্রতিবেদক: খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ডাক্তার ডক্টর সুমিত পাল এর ওপর হামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে খুলনা পিএমএ । বুধবার (০৭ মার্চ)দুপুরে বিএমএ দপ্তরে এ সম্মেলন করা হয়। এতে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসকে মারধর ও হামলাকারীদের গ্রেফতারে আল্টিমেটাম দেন চিকিৎসক নেতারা। তারা বলেছেন, বুধবার সকাল থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আসামীদের পুলিশ গেফতার করতে না পারলে কর্মবিরতীসহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে লিথিত বক্তব্য পাঠ করেন বিএমএ খুলনার সভাপতি ডা. শেখ বাহারুল আলম। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডা. মেহেদী নেওয়াজ, খুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. মঞ্জুর মোর্শেদ, চিকিৎসক নেতা অধ্যক্ষ বঙ্গকমল বসু,ডা. শওকত আলী লস্কর, ডা. মহসীন আলী ফারাজী, ডা. সুমন রায়, ডা. হিমেল সাহা, ডা. বাপ্পী, ডা. সোহানা সেলিম, ডা. মুকুল প্রমুখ।

চিকিৎসক নেতারা বলেন, গত ৩ এপ্রিল রাত্রিকালীন ডিউটি রোস্টারের দায়িত্ব পালন করছিলেন খুমেক হাসপাতালের ডেডিকেটেড করোনা ইউনিটে মেডিকেল অফিসার ডা: সুমিত পাল। ওই দিন বিকেলে করোনায় ভাইরাসে আক্রান্ত বৃদ্ধ রফিকুল ইসলামকে ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে আইসিইউ ওয়ার্ডের ৪নং বিছানায় ভর্তি হন। ওই দিন রাত ৯টা ২৫ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। ডা: সুমিত পাল যখন রোগীর মৃত্যু সনদ লিখছিলেন। এ সময় হঠাৎ করে কাউকে কিছু না বলে  রোগীর দুইজন ছেলেসহ আরো ২/৩ জন তাঁর ওপর হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা তাকে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে গালিগালাজসহ তার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কিল, ঘুষি, চড় এলোপাতাড়িভাবে হামলা চালায়। এ সময় হাসপাতালের স্টাফ নার্সসহ এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় ডা. সুমিত ও হাসপাতাল পরিচালক মঞ্জুর মোর্শেদ সোনাডাঙ্গা পৃথক দুটি মামলা করলেও আসামীরা গ্রেফতার হয়নি। এ অবস্থায় চিকিৎসক ও চিকিৎসা সংশ্লিষ্টরা নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন।

বিএমএ নেতারা দ্রুত সুমিত পালের ওপর হামলাকারী গ্রেফতার, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী সুরক্ষা আইন প্রণয়ন, ভুল চিকিৎসা ও অবহেলা প্রমাণ না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসক হয়রানি ও গ্রেফতার বন্ধ, চিকিৎসাকেন্দ্র সংক্ষুদ্ধ আক্রমণ থেকে রক্ষা করতে কঠোর আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়নসহ ৫ দফা দাবি উপস্থাপন করেন।

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ