বাগেরহাটে চোরের হাতে মাছের ঘের পাহারাদার খুন, হত্যাকারী গ্রেফতার

সর্বশেষ আপডেটঃ

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটের পল্লীতে মাছের ঘেরের পাহারাদার আব্দুর রাজ্জাক সেখ হত্যাকান্ডের মুল ঘাতক ঘের মালিকের ভাগ্নে আব্দুল্লাহ হাওলাদার (৩০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আব্দুল্লাহ হাওলাদার স্থানীয় বেশরগাতি গ্রামের আতাহার আলী হাওলাদারের ছেলে এবং পেশায় অটোচালক।

চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহত আব্দুর রাজ্জাক শেখের স্ত্রী জামিলা বেগম বাদী হয়ে মঙ্গলবার বাগেরহাট সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন । প্রসঙ্গতঃ বাগেরহাট সদর উপজেলার বিষ্ণুপর ইউনিয়নের কুচিবগা খাল থেকে মঙ্গলবার সকালে আব্দুর রাজ্জাক শেখ (৪২) এর ভাসমান মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত আব্দুর রাজ্জাক শেখ বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের কোয়েখা গ্রামের রুস্তম আলী শেখের ছেলে। সে পাশ্ববর্তী বেশরগাতী গ্রামের শওকত আলীর মৎস্য ঘেরের কর্মচারী (পাহারাদার) ছিলেন। সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে বাড়ি থেকে খাওয়া দাওয়া করে পাহারার জন্য মাছের ঘেরে যায় সে। মঙ্গলবার সকালে তার লাশ উদ্ধার হয়। পুলিশ লাশের শরীরে আঘাতের চ্হ্নি দেখে নিশ্চিত হয় তাকে হত্যা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় পুলিশ মঙ্গলবার বিকেলে মাছের ঘেরের মালিক বেশরগাতি গ্রামের শওকত আলীর ওরফে শহর আলীর ভাগ্নে অটো চালক আব্দুল্লাহ হাওলাদার কে গ্রেফতার করে। আব্দুল্লাহ হাওলাদার পুলিশের প্রথামিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায় মামার ঘেরের মাছ চুরি করতে গিয়ে পাহারাদার রাজ্জাকের হাতে ধরা পড়ে। বিষয়টি যাতে জানাজানি না হয় সেজন্য রাজ্জাক কে হত্যা করে খালে ফেলে দেয়া হয়। বাগেরহাট সদর মডেল থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, রাজ্জাক শেখ হত্যাকান্ডের ঘটনায় মুলঘাতক আব্দুল্লাহ হাওলাদার কে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে আব্দুল্লাহ কে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

(ঊষার আলো-এফএসপি)