UsharAlo logo
শনিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইদহ পৌর ভোট রোববার

usharalodesk
সেপ্টেম্বর ১০, ২০২২ ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঊষার আলো রিপোর্ট :নির্বাচন কমিশনের (ইসি) তফসিল ঘোষণার প্রায় তিন মাস স্থগিত থাকার পর ঝিনাইদহ পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রোববার (১১ সেপ্টেম্বর)।গত ১৫ জুন এ পৌরসভায় ভোট হওয়ার কথা থাকলেও নির্বাচনী পরিবেশ বিঘ্নিত হওয়ায় আদালতের আদেশে ১২ জুন ঝিনাইদহ পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে ইসি।

তবে আদালতের সিদ্ধান্তেই এ পৌরসভা ভোটের পুনরায় দিনক্ষণ ঠিক করেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।কমিশনের জনসংযোগ পরিচালক এস এম আসাদুজ্জামান বলেন, ঝিনাইদাহ পৌরসভা ভোট যে পর্যায় থেকে স্থগিত হয়েছিল সে পর্যায় থেকে পুনরায় কার্যক্রম শুরু করে ১১ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।

সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে টানা ভোটগ্রহণ চলবে।ইসির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেন, এ নির্বাচনে যারা প্রার্থী ছিলেন তাদের নিয়েই ভোট হবে। যে প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল হয়েছিল আদালতের আদেশে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী আবদুল খালেক প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ায় তিনিও লড়বেন এ নির্বাচনে। এর বাইরে এ পর্যায়ে নতুন কোনো প্রার্থী যোগ হওয়ার সুযোগ নেই।

ইসি জানায়, কাজী হাবিবুল আউয়াল কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার কয়েক মাসের মাথায় এই নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের এক প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করে দিয়ে বেশ ইতিবাচক ইমেজ তৈরি করেছিলেন। প্রার্থী আবদুল খালেকের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ ভঙ্গের প্রমাণ পাওয়ায় ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল আউয়াল কমিশন। নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে গত ২ জুন এক প্রজ্ঞাপনে খালেকের প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।

এরপরই আবদুল খালেক আদালতের দ্বারস্থ হলে নির্বাচনের সব কার্যক্রমে ওপর এক মাসের জন্য স্থগিতাদেশ দেন হাইকোর্ট। নির্বাচন কমিশনের ওই প্রজ্ঞাপনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট করে আদালতের আদেশে প্রার্থিতা ফিরে পান খালেক। যার ফলে আদালতের আদেশ অনুযায়ী তার নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে কোনো বাধা নেই।

যুগ্মসচিব ও জনসংযোগ পরিচালক এস এম আসাদুজ্জামানা বলেন, এ পৌর ভোট উপলক্ষে মোটরসাইকেল, ট্রাক, পিকআপ ও কিছু নৌযান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া, নির্বাচনের পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ রাখার জন্য ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পাঁচ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনে করা হয়েছে। তারা ভোটগ্রহণের দুই আগে থেকে পরের দিন নিয়োজিত থাকবেন।

ঊষার আলো-এসএ