অকাল প্রয়াত সাবেক ছাত্রদল নেতা এস এম কামালের দাফন সম্পন্ন

সর্বশেষ আপডেটঃ
প্রয়াত কামালের প্রতি বিএনপির শ্রদ্ধা - ঊষার আলো

ঊষার আলো ডেস্ক : রবিবার ( ০৩ অক্টোবর) জোহর বাদ দক্ষিণ টুটপাড়া বায়তুশ শরফ জামে মসজিদের সামনে ছাত্রদল নেতা এস এম কামাল হোসেন এর নামাজে জানাজা শেষে টুটপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। এর আগে ভোরে নিজ বাসায় এ ছাত্রনেতা মাত্র ৪২ বছরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান।

এদিকে জানাযা পুর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, ছাত্রনেতা এস এম কামাল হোসেন এর অকাল মৃত্যুতে খুলনা মহানগর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠন গভীরভাবে শোকাহত ও ব্যথিত। কামাল ছিলেন একজন দায়িত্বশীল ও নিবেদিত প্রাণ নেতা। দলের সব সংকটকালে তিনি সাহসী নেতৃত্ব দিয়েছেন। তাঁর এই অসময়ে চলে যাওয়া দলের জন্য বড় কষ্টের। কামালের মৃত্যুতে দল একজন সাহসী নেতাকে হারালো। কামালের মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হবে, তা সহজে পূরণ হবার নয়। দলের প্রতি তার অবদান বিএনপি আজীবন স্মরণে রাখবে।

সরকারি সুন্দরবন আদর্শ মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রজীবনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কর্মী হিসেবে ছাত্র রাজনীতি শুরু করে ১৯৯৫ সালে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক, ১৯৯৮ সালে সরকারী সুন্দরবন কলেজ ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক ও ২০০১ সালে সভাপতি, ২০১০- ১৬ সালে খুলনা মহানগর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক ও ২০১৫ সালে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন কালে দীর্ঘ দুইটি গনতান্ত্রিক আন্দলনে রাজপথে সাহসী ভূমিকা পালনকারী অত্যন্ত মেধাবী এসএম কামাল হোসেন ২০১৪ সালে সরকারী ব্রজলাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামের ইতিহাসে মাস্টার্স পাশ করে। রাজনীতিতে সৎ সাহসী নিষ্ঠাবান ছাত্র আন্দোলনের প্রান কর্মীদেও কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় পরোপকারী বিনয়ী ভদ্র একাধিক বার কারা নির্যাতন ভোগকারী ৭০টির বেশি মিথ্যা মামলার আসামী ছিলেন এস এম কামাল হোসেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মেয়র মহানগর বিএনপির সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্তজা, আমির এজাজ খান, জাফরুল্লাহ খান সাচ্চু, আব্দুল জলিল খান কালাম, রেহানা ঈসা, শাহ জালাল বাবলু, ফখরুল আলম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, আরিফুজ্জামান অপু, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, সিরাজুল হক নান্নু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, মেহেদী হাসান দিপু, মহিবুজ্জামান কচি, শফিকুল আলম তুহিন, আজিজুল হাসান দুলু, এহতেশামুল হক শাওন, শের আলম সান্টু, শেখ সাদী, সাজ্জাদ হোসেন পরাগ, সাজ্জাদ আহসান তোতন, বিপ্লবুর রহমান কুদ্দুস, মাসুদ পারভেজ বাবু, শফিকুল ইসলাম হোসেন, আব্দুল আজিজ সুমন, শামসুজ্জামান চঞ্চল, মজিবুর রহমান ফয়েজ, নাজমুল হুদা সাগর, ফারুক হোসেন হিল্টন, নেইমুল ইসলাম নেইম, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, শরিফুল ইসলাম বাবু, হেলাল আহমেদ সুমন, আবু সাইদ শেখ, ম শ আলম, ইস্তিয়াক আহমেদ ইস্তি, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি, তাজিম বিশ্বাস, মোহাম্মদ আলী, কাউন্সিলর শমসের আলী মিন্টু, মাজেদা খাতুন, সাইমুন ইসলাম রাজ্জাক, আবু বকর, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তরিকুল ইসলাম জহির, সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিলটন, সাংবাদিক রাশিদুল ইসলাম,সাংবাদিক সোহরাব হোসেন, সাংবাদিক আমিনুল ইসলামসহ মহানগর, থানা, ওয়ার্ড বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে প্রয়াত ছাত্রনেতার কফিনে দলীয় পতাকা ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে মরহুমের নামাজে জানাজা শেষে টুটপাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়।

উল্লেখ্য, সাবেক মহানগর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন শনিবার দিনগত রাত আড়াইটায় বুকে ব্যাথায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে নগরীর একটি বেসরকারী হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে (ইন্নালিল্লাহ ওয়াইন্নাইলাইহি রজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৪২ বছর। ইতিপুর্বে সে তার পিতা-মাতা ও বড় ভাইকে হারিয়েছে। মৃত্যুকালে সে স্ত্রী, এক শিশু কন্যা, এক বোন ও মৃত ভাইয়ের স্ত্রী ও পূত্র সন্তানকে রেখে গেছেন।

মহানগর বিএনপির শোক :
ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন এর মৃত্যুতে গভীর শোক, শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন খুলনা মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বিবৃতিদাতারা হলেন মহানগর বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, সিরাজুল ইসলাম, এড. ফজলে হালিম লিটন, এড. বজলুর রহমান, এড. এস আর ফারুক, স ম আব্দুর রহমান, শেখ ইকবাল হোসেন, শেখ জাহিদুল ইসলাম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মো. মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, এস এম আরিফুর রহমান মিঠু ও ইকবাল হোসেন খোকন প্রমুখ।

(ঊষার আলো-এমএনএস)