অবৈধ সরকারকে হটিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে : মঞ্জু

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : ইস্পাতের ন্যায় কঠিন গণঐক্য তৈরি করে অবৈধ সরকারকে হটিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। সোমবার (১১ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় সোনাডাঙ্গা থানা বিএনপির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত তাঁতীদলের কর্মী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সাবেক সংসদ সদস্য মঞ্জু বলেন, আমাদের একটাই লক্ষ্য তাহলো জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা। জনগনের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে বর্তমান স্বৈরাচার হাসিনা সরকারের পতন ঘটিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি, জনগণের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে হবে। সকলকে সরকার পতনের এক দফা দাবিতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শক্তিশালী প্লাটফর্ম তৈরি করতে হবে। রাতের ভোটে নির্বাচিত অবৈধ স্বৈরাচারী সরকারকে হঠাতে তাতীঁদলকে শক্তিশালী করতে হবে। স্বৈরাচার সরকারের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে গণআন্দোলনের বিকল্প নেই।

মহানগর তাঁতী দলের আহবায়ক মুহাম্মদ আবু সাঈদ শেখের সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব ম শ আলম এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা ছিলেন খুলনা মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি। বিশেষ অতিথি ছিলেন আরিফুজ্জামান অপু, নজরুল ইসলাম বাবু, ইকবাল হোসেন খোকন ও আসাদুজ্জামান মুরাদ। সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইশতিয়াক উদ্দিন লাভলু, জালাল শরীফ, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, মিজানুর রহমান মিলটন, শেখ শওকাত হোসেন, হাফিজুর রহমান মনি, শেখ জামাল উদ্দিন, আকরাম হোসেন খোকন, ইশাহাক তালুকদার, জামিলুর রহমান জামিল, সরদার রবিউল ইসলাম রবি, বাবু মোড়ল, বাচ্চু মীর, মোস্তফা কামাল, আব্দুল আলিম, মেহেদী হাসান সোহাগ, মনিরুল ইসলাম, হেদায়েত হোসেন হেদু, সৈয়দ গাজী, মোক্তার হোসেন, এড. আসলাম হোসেন, সেলিম বড় মিয়া, দেলোয়ার হোসেন মাতুব্বর, এড. মনিরুজ্জামান খোকন, মোল্যা আলী আহমেদ, আসিফ ইকবাল, মুনসুর আলী বাবলু, মারুফুর রহমান মারুফ, আলমগীর হোসেন, শরীফুল আলম তুষার, আমিনুল ইসলাম বুলবুল, সাজ্জাদ হোসেন, মো. ইকবাল হোসেন, গোলাম নবী ডালু, মো. ফারুক খান, আতিয়ার রহমান, শরিফুল ইসলাম সাগর, মো. ইমরান হোসেন, আলী আজগর, সালাউদ্দিন সুইট, হাবিবুর রহমান, সাচ্চু ব্যাপারী, আসমত হোসেন প্রমুখ।

সম্মেলনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী তাঁতীদল সোনাডাঙ্গা থানার আহবায়ক মো. হালিম মোড়ল ও মো. হুমায়ুন কবিরকে সদস্য সচিব করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। ঘোষিত কমিটির ৬জন যুগ্ম আহবায়ক হলেন এস এম মাহমুদ, শেখ গিয়াস উদ্দিন, আব্দুল মজিদ গাজী, শেখ দিদারুল ইসলাম মো. আরমান হোসেন আফান ও মো. সরোয়ার হোসেন ফকির। কমিটির সদস্যরা হলেন শেখ হাবিবুর রহমান হাবিব, মোল্যা কবির হোসেন, মো. সিদ্দিক মাতুববর, এস এম জাকির হোসেন, সোহাগ গাজী, গোপাল কুমার দে, মুরাদ গাজী, গোলাম মোস্তফা সেলিম, মো. মাসুম হাওলাদার, শেখ এনামুল কবির, সৈয়দ হাফিজুর রহমান, শেখ আকবর আলী, আব্দুল খালেক হাওলাদার, মো. মোস্তফা শেখ, মো. লাভিন মোল্যা, শেখ রবিউল ইসলাম, এস এম নুর ইসলাম, মো. আল আমিন খলিফা, মনির হোসেন মাতুব্বর, মো. সুলতান বিশ্বাস, মো. মনির হাওলাদার, মোসা. পিয়া আক্তার ও মোসা. পারভীন আক্তার।