কথা দিয়ে বিয়ের দাওয়াতে না আসায় অতিথিদের জরিমানা করলেন দম্পতি!

সর্বশেষ আপডেটঃ

ঊষার আলো ডেস্ক : আমেরিকার শিকাগোর এক নবদম্পতি তাদের বিয়ের অনুষ্ঠানে অতিথিদের দাওয়াত করেছিলেন। সে অনুযায়ী জ্যামাইকাতে তাদের জাঁকজমকপূর্ণ এক ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ের আয়োজন ছিল। তবে আসার কথা বলেও দুই অতিথি আসেননি। এজন্য তাদের প্রতিজনকে ১২০ ডলার করে মোট ২৪০ ডলার (প্রায় ২০,০০০ টাকা) জরিমানা করেন এই দম্পতি।

অতিথিদের কাছে পাঠানো বিলের কারণ হিসেবে তাতে বলা হয়, ‌‘নো কল, নো শো’। অর্থাৎ এই তারা যে দাওয়াতে আসবেন না, সেটি তারা কল দিয়ে জানাবার প্রয়োজনও বোধ করেননি।

চলতি সপ্তাহেই ‘হাফ পোস্ট’-এর সিনিয়র ফ্রন্ট পেজ সম্পাদক, ফিলিপ লুইস সে বিলের একটি ছবি তুলে টুইটারে পোস্ট করেন। ছবিটি ইতোমধ্যে নেটিজেনদের মাঝে মিশ্র এক প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে।

আলোচিত ওই বিলের মধ্যে আরও উল্লেখ ছিল যে, ‘এটি আপনার কাছে পাঠানোর কারণ, অনুষ্ঠানের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত আসবেন বলে আপনি কথা দিয়েছিলেন। আপনার জন্য যে অ্যডভান্স সিট বুকিং দেওয়া হয়েছিল, শুধু সেই সিটের খরচ হিসেবে এ বিল পাঠানো হয়েছে। কারণ আপনি যে আসবেন না, সে বিষয়ে আমাদের আগে থেকে জানাননি।’

বিলের প্রেরক সে যুগলের নাম ডগ সিমন্স ও ডেড্রা ম্যাকগি।

নিউইয়র্ক পোস্টকে সিমন্স বলেন, আমরা চারবার জিজ্ঞেস করেছি সবাইকে, ‘আপনি কি সত্যি আসতে পারবেন?’ তারা বলেন, ‘হ্যাঁ, পারব।’ এরপরেও তারা আসেননি। তবে এটা যেহেতু জ্যামাইকাতে ডেস্টিনেশন ওয়েডিং ছিল, আমাদের অবশ্যই আগে হতেই টাকা দিতে হয়েছিল আয়োজকদের।

তিনি বলেন, এটা আসলে খুবই সামান্য ব্যাপার। তবে তিনি এমন কোনো তুচ্ছ ব্যক্তি নন, নিমন্ত্রণ না রক্ষা করায় কাউকে জরিমানা করে বসবেন! সদ্য বিবাহিত বর জানালেন, তার আসল উদ্দেশ্য ছিল বিল পাঠানোর মাধ্যমে মানুষের মাঝে নৈতিকতা বোধ জাগিয়ে তোলা। কোনো দাওয়াতে, বিশেষ করে ডেস্টিনেশন ওয়েডিংয়ে খরচটা একটু বেশিই হয়। তাই সেখানে আসতে না পারলে আগে থেকেই জানানো উচিত। এই ভদ্রতাটুকু যেন তারা শিখেন- আর এটাই বুঝাতে চেয়েছিলেন তিনি।

(ঊষার আলো-এফএসপি)